অপহরণের পর বাড়ির মালিকের ছেলেকে হত্যা করে পালাল ভাড়াটিয়া

সাভারের আশুলিয়ায় বাড়িওয়ালার ছেলেকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি করে ভাড়াটিয়া দম্পতি। মুক্তিপণের টাকা না দেওয়ায় ছেলেটিকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর বস্তাবন্দি করে চারতলা ভবনের ছাদ থেকে ফেলে দেয় অপহরণকারীরা।   

গতকাল রবিবার (২৮ মার্চ) রাত ১০টার দিকে আশুলিয়ার টঙ্গাবাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত রাজা (১২) ওই এলাকার কালাম মাদবরের ছেলে।  এ ঘটনায় লিজা নামে অভিযুক্ত এক নারীকে আটক করেছে পুলিশ। তার স্বামী আরিফুল ইসলাম পলাতক রয়েছেন। তিনি পাবনা জেলার আমিনপুর থানার ভাতশাল গ্রামের আজিজ শেখের ছেলে। তারা কালাম মাদবরের বাড়ির দোতলার ভাড়াটিয়া।  

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রবিবার সন্ধ্যায় কালাম মাদবরের বাড়ির দোতলার ওই ভাড়াটিয়া দম্পতি রাজাকে অপহরণ করে। পরে রাজার মুক্তিপণ হিসবে ৫০ লাখ টাকা দাবি করেন তারা। বিষয়টি জানাজানি হলে এবং মুক্তিপণের টাকা না পেয়ে অপহরণকারীরা রাজাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে বস্তাবন্দি করেন। পরে বাড়ির চারতলার ছাদ থেকে শিশুটির মরদেহ ফেলে দেন। ঘটনার পরপর অপহরণকারী আরিফুল ইসলাম পালিয়ে গেলেও তার স্ত্রীকে আটক করে পুলিশকে খবর দেন স্থানীয়রা।  

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আল আমিন  বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে এসেছি। মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নেওয়া হয়েছে। লিজা নামে অভিযুক্ত একজনকে আটক করা হয়েছে।