অবৈধ সম্পদ অর্জন : এক ব্যক্তির সাত বছরের কারাদণ্ড

অবৈধ সম্পদ অর্জন এবং তথ্য গোপনের একটি মামলায় একেএম শফিকুল আহসান নামের এক ব্যক্তিকে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। ঢাকার ৯ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক শেখ হাফিজুর রহমান গতকাল মঙ্গলবার এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার সময় দণ্ডিত একেএম শফিকুল আহসান আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

রায়ে দণ্ডিতের সাত বছরের কারাদণ্ডের মধ্যে দুর্নীতি দমন আইনের ২৬(২) ধারায় দুই বছরের কারাদণ্ড এবং ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছেন আদালত। অনাদায়ে আরো এক মাসের বিনাশ্রমে কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

অন্যদিকে একই আইনের ২৭(১) ধারায় আসামিকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড এবং ৬৯ লাখ ২৬ হাজার ১৯২ টাকা অর্থদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। এ ছাড়া অসৎ উপায়ে অর্জিত ৬৯ লাখ ২৬ হাজার ১৯২ টাকা রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্তের নির্দেশও দিয়েছেন আদালত।

একেএম শফিকুল আহসানের বিরুদ্ধে ৩৫ লাখ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জন এবং এক কোটি ৭০ লাখ ১২ হাজার ৬৮৩ টাকার সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে ২০১০ সালের ১ জুন দুদকের সহকারী পরিচালক এসএমএম আখতার হামিদ ভুঁইয়া রাজধানীর রমনা থানায় মামলা করেন।