ইউক্রেন সীমান্তে রুশ সেনা মোতায়ন অব্যাহত রয়েছে

ঢাকা: রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা যুদ্ধে রূপ নেওয়ার আশঙ্কার মধ্যেই ইউক্রেন সীমান্ত থেকে কিছুসংখ্যক সেনা ফিরিয়ে নেওয়ার কথা জানিয়েছিল মস্কো। তবে এই মিথ্যা বলে আখ্যায়িত করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

আজ (১৭ ফেব্রুয়ারি) বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের জ্যেষ্ঠ এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

কাতার সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এক প্রতিবেদনে পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটো বলছে, দেশটিকে ঘিরে রাশিয়া তার সেনা ও সরঞ্জাম মোতায়েন অব্যাহত রেখেছে। ফলে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো সংকট সমাধানে পুতিনের সদিচ্ছার বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছে। 

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বাইডেনের দাবি, সীমান্তে এক লাখ ৭০ হাজার সেনা এখনও মোতায়েন করে রেখেছে দেশটি।

মার্কিন ওই জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তার নাম প্রকাশ করেনি বিবিসিকে। তবে ওই কর্মকর্তা বলেছেন, সর্বশেষ কয়েক দিনে ইউক্রেন সীমান্তে নতুন করে আরও ৭ হাজার সেনা জড়ো করেছে রাশিয়া। 

একই সঙ্গে মিথ্যা অজুহাতে রাশিয়া যে কোনো সময় ইউক্রেনে হামলা করতে পারে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

যদিও রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, রাশিয়া ইউক্রেনের সীমান্তঘেঁষা দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চল থেকে মহড়া শেষে সেনা প্রত্যাহার করেছে। এদিকে বেলারুশও জানিয়েছে, মহড়া শেষ হওয়ার পর দেশটিতে একদিন বাড়তিও থাকবে না রুশ সেনারা।

রাশিয়ার পক্ষ থেকে প্রকাশ করা এক ভিডিওতে দেখা যায়, ট্যাংক, ইনফ্র্যান্টি রেজিমেন্টের ভারি অস্ত্র ও আর্টিলারি ডিভিশনের কামানসহ ভারি অস্ত্র ক্রাইমিয়া থেকে সরিয়ে নিতে দেখা গেছে। যদিও এই ক্রাইমিয়া অঞ্চলই ইউক্রেন থেকে যুদ্ধ করে দখল করে নেয় মস্কো। পরে নিজ ভূখণ্ডের সঙ্গে যুক্ত করে।

প্রভাতনিউজ/এবিএস