ইউরোপ সীমান্তে সহিংসতার শিকার শরণার্থীদের জন্যে জাতিসংঘের উদ্বেগ

ইউরোপ সীমান্তে শরণার্থীদের বারবার পুশব্যাক ও বহিষ্কারের ঘটনা দিন দিন বেড়ে যাওয়ায় বৃহস্পতিবার উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ।

জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা আশ্রয়প্রার্থীদের অধিকার নিশ্চিত ও সহিংসতা তদন্তে একটি স্বাধীন পর্যবেক্ষণ প্রক্রিয়া তৈরির জন্য বিভিন্ন দেশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। খবর বাসসের।

ইউএনএইচসিআরের সুরক্ষাবিষয়ক সহকারী হাইকমিশনার গিলান ট্রিগস বলেন, ইউরোপের বিভিন্ন দেশ শরণার্থীদের বাধা দিচ্ছে, তাদের জলসীমায় শরণার্থীরা পৌঁছানোর পরও তাদের ফিরিয়ে দিচ্ছে। সীমান্তে শরণার্থীদের ওপর সহিংস হামলা চালানো হচ্ছে বলেও সংস্থাটির কাছে অব্যাহতভাবে খবর আসছে। তিনি বলেন, এই পুশব্যাক খুবই সহিংস ও পদ্ধতিগত উপায়ে হচ্ছে।

ইউএনএইচসিআর সতর্ক করে বলছে, যারা স্থলভাগ দিয়ে সীমান্ত পাড়ি দেওয়ার চেষ্টা করছে তাদেরকে গোপনে আটক করে আন্তর্জাতিক সুরক্ষার প্রয়োজনীয়তা বিবেচনায় না নিয়ে জোরপূর্বক প্রতিবেশী দেশে ফেরত পাঠানো হচ্ছে।

ইউরোপে শরণার্থীর সংখ্যা কমে যাওয়ার কথা উল্লেখ করে সংস্থাটি বলছে, পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার মতো। সংস্থাটি ইউরোপীয় দেশগুলোর প্রতি শরণার্থী সুরক্ষা অঙ্গীকার সমুন্নত রাখার আহ্বান জানিয়েছে।