উত্তর সিটির ১০ ভ্রাম্যমাণ আদালত মাঠে

করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ রোধে সরকারি নির্দেশনার প্রতিপালন বাস্তবায়ন করতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) পক্ষ থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হচ্ছে৷ ডিএনসিসি’র ১০টি ভ্রাম্যমাণ আদালত মাঠে আছে বলে করপোরেশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

সোমবার সকালে উত্তর সিটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম রেজা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ডিএনসিসি’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাজওয়ার আকরাম সাকাপি ইবনে সাজ্জাদ জানান, মন্ত্রিপরিষদ থেকে নির্দেশনা বাস্তবায়নে তারা মাঠে রয়েছেন৷

অফিসপাড়া বন্ধ থাকায় রাজধানীর মূল সড়কে যান চলাচল ও সাধারণ মানুষের চলাচল অনেকটাই কম। কিন্তু পাড়া-মহল্লায় নাগরিকদের অবাধ বিচরণ সামাজিক দূরত্ব ভেঙে চলেছে। অন্যান্য দিনের চাইতে আজ যেন চায়ের দোকানের আড্ডা বেশি জমে উঠেছে। মহল্লায় ঘুরে বেড়ানো নাগরিকদের বেশিরভাগই স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না।

পাড়া-মহল্লায় সিটি করপোরেশনের অভিযান পরিচালিত হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে সীমিত জনবলের কথা জানান এই নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

তিনি বলেন, ‘আমাদের সীমিত জনবল দিয়ে আমরা যতদূর সম্ভব সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নে বদ্ধপরিকর।’

করপোরেশনের অঞ্চল-৫ এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ হোসেন জানান, তিনি কারওয়ানবাজার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছেন। বেলা ১২টা পর্যন্ত কাউকে জরিমানার আওতায় আনা হয়নি বলেও জানিয়েছেন তিনি।