এএসপি আনিসুল হত্যার প্রতিবাদ শাহবাগে মোমবাতি প্রজ্বলন

রাজধানীর আদাবরের একটি হাসপাতালে পুলিশের সিনিয়র সহকারী কমিশনার আনিসুল করিম শিপনকে হত্যার প্রতিবাদ ও দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মোমবাতি প্রজ্বলন কর্মসূচি পালন করেছেন ৩১তম বিসিএস ক্যাডাররা।  

শনিবার সন্ধায় শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে ৩১তম বিসিএস ক্যাডার এসোসিয়েশনের ব্যানারে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

এ সময় ৩১তম বিসিএস ক্যাডার এসোসিয়েশনের সভাপতি আব্দুল্লাহ আল হাদী বলেন, একজন সরকারি কর্মকর্তাকে এভাবে পিটিয়ে মেরে ফেলার ইতিহাস বাংলাদেশে খুব কমই আছে। একজন সরকারি কর্মকর্তা রাষ্ট্রীয় সম্পদ। তার মৃত্যু মানে রাজস্বের ক্ষতি, সরকারের ক্ষতি, জনগণের ক্ষতি। আমরা এই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং সরকারের প্রতি আহ্বান থাকবে, শিপন হত্যার বিচারের মাধ্যমে বাংলাদেশে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে হবে, যাতে ভবিষ্যতে আর কোনো শিপনকে জীবন দিতে না হয়।

তিনি বলেন, বিভিন্ন জায়গায় চিকিৎসার নামে অবৈধভাবে যেসব হাসপাতাল গড়ে উঠেছে, চিকিৎসার নামে যারা অপচিকিৎসা দিচ্ছে, যাদের কোনো সরকারি অনুমোদন নাই, চিকিৎসার নামে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে, এগুলোকে খুঁজে খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনতে হবে। 

কর্মসূচিতে সংহতি জানিয়ে ৩১তম বিসিএস ক্যাডার রমনা জোন পুলিশের এডিসি হারুনুর রশিদ বলেন, আমরা তার নেতৃত্বে সারদা পুলিশ একডেমিতে একবছর কঠোর মন-দৈহিক পরিশ্রম করেছি। সেখানে একছর প্রশিক্ষণকালীন তাকে কখনো অস্বাভাবিক আচরণ করতে দেখিনি। 
 
উল্লেখ্য, গত ৯ নভেম্বর মাইন্ড এইড হাসপাতালে মৃত্যু হয় আনিসুল করিমের। পরে ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজে কয়েকজন ব্যক্তিকে তাকে একটি কক্ষে নিয়ে গিয়ে মারধর করতে দেখা গেছে। তাদের ধস্তাধস্তি ও মারধরেই এই পুলিশ কর্মকর্তার মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ তার পরিবারের।