এক সপ্তাহে বিনিয়োগকারীদের নেই সাড়ে ১০ হাজার কোটি টাকা

বড় দরপতনের মধ্য দিয় গত সপ্তাহ পার করেছে দেশের শেয়ারবাজার। এই পতনের মধ্যে পড়ে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগকারীদের সাড়ে ১০ হাজার কোটি টাকার ওপরে ‘নেই’ হয়ে গেছে। তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমার মাধ্যমে এই অর্থ হারিয়েছেন বিনিয়োগকারীরা।

গত সপ্তাহে চার কার্যদিবস লেনদেন হয় শেয়ারবাজারে। এতেই বড় অঙ্কের এই অর্থ হারান বিনিয়োগকারীরা। সেই সঙ্গে মূল্যসূচকেরও বড় পতন হয়েছে। কমেছে লেনদেনের পরিমাণও।

গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসের লেনদেন শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ৭২ হাজার ৯৭ কোটি টাকা। যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৪ লাখ ৮২ হাজার ৮৫৪ কোটি টাকা। অর্থাৎ এক সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধন কমেছে ১০ হাজার ৭৫৭ কোটি টাকা। বাজার মূলধন বাড়া বা কমার অর্থ তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর শেয়ার ও ইউনিটের দাম সম্মিলিতভাবে ওই পরিমাণ বেড়েছে বা কমেছে।

এদিকে গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স কমেছে ১৩৪ দশমিক ১৬ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ৪১ শতাংশ। আগের ছয় সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ৫৩ দশমিক শূন্য ৭ পয়েন্ট।

প্রধান মূল্যসূচকের পাশাপাশি বড় পতন হয়েছে ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচকেরও। গত সপ্তাহজুড়ে সূচকটি কমেছে ৮০ দশমিক ৭৮ পয়েন্ট বা ৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ। আগের সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ৪১ দশমিক ৯৯ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৯৯ শতাংশ।

অপরদিকে ইসলামী শরিয়াহ ভিত্তিতে পরিচালিত কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক গত সপ্তাহজুড়ে কমেছে ১৮ দশমিক শূন্য ৯ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৪৩ শতাংশ। আগের সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ১৭ দশমিক ১৭ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৩৮ শতাংশ।