এবার রুবল দিয়ে কিনতে হবে রাশিয়ার গ্যাস

রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের কার্যালয় ক্রেমলিনের প্রেস সেক্রেটারি ও মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছেন, যেসব দেশ রুশ মুদ্রা রুবলের বিনিময়ে রাশিয়ার গ্যাস কিনতে রাজি আছে, কেবল তাদের কাছেই গ্যাস বিক্রি করবে দেশটির সরকার। কোনো দেশ এই শর্ত মানতে না চাইলে ওই দেশের কাছে গ্যাস বিক্রি করা হবে না। সোমবার মস্কোতে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে এ সম্পর্কে পেসকভ বলেন, গ্যাস সরবরাহের গোটা ব্যাপারটি খুবই, খুবই জটিল। এটি এমন নয় যে, আপনি কোনো একটা দোকানে গিয়ে একটি পণ্য কিনলেন, তারপর তার দাম দিয়ে চলে গেলেন। গ্যাসের উত্তোলন, সরবরাহ, মূল্য পরিশোধ পুরো ব্যাপারটিই মোটেও সহজ নয় এবং এতে শৃঙ্খলা আনতেই রুবলে গ্যাস বিক্রির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, ইউরোপ যদি গ্যাসের বিনিময়মূল্য রুবলে পরিশোধ করতে না চায়, সেক্ষেত্রে আমরা বলব এই মুহূর্তে রাশিয়া সেই অবস্থায় নেই যে, ইউরোপকে বিনে পয়সায় গ্যাস দিতে পারবে। আমরা এখানে কোনো প্যান-ইউরোপীয় দাতব্য সংস্থা খুলে বসিনি, ভবিষ্যতেও তেমন সম্ভাবনা নেই।

গত ২৩ মার্চ এক ঘোষণায় রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেন, রাশিয়া তার ব্যবসায়িক অংশীদারদের আগের মতোই গ্যাস সরবরাহ করে যাবে। আন্তর্জাতিক বাজারে গ্যাসের যে দাম, সেই দামেই গ্যাস বিক্রি করবে রাশিয়া।

তবে যেসব বিদেশি ক্রেতা রাশিয়ার গ্যাস কিনতে আগ্রহী, তাদেরকে গ্যাসের বিনিময়মূল্য পরিশোধ করতে হবে রুশ মুদ্রা রুবলে। এক্ষেত্রে গ্যাস কেনার আগে বিদেশি ক্রেতাদের রাশিয়ার মুদ্রাবাজার থেকে প্রথমে রুবল কিনতে হবে।

সোমবার সাত শিল্পোন্নত দেশ ফ্রান্স, জার্মানি, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, ইতালি ও জাপানের জোট জি৭ জানিয়েছে, রাশিয়ার এই শর্ত গ্যাস বিক্রয় চুক্তির লঙ্ঘণ এবং জোটের সদস্যরা রুবলের বিনিময়ে গ্যাস কিনবে না।

জি৭-এর এই সিদ্ধান্তের প্রতিক্রিয়ায় এ বিষয়ে রাশিয়ার অবস্থান স্পষ্ট করলেন পেসকভ। তথ্যসূত্র: রয়টার্স, রিয়া নভোস্তি

প্রভাতনিউজ/এনজে