কঠিন সমীকরণে মাঠে নামছে সাত দল

মরুর বুকে প্রথম বিশ্বকাপে শেষ ষোলো নিশ্চিত করেছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স, পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল ও পর্তুগাল। এখনও নিশ্চিত হয়নি শেষ ষোলোর আরও ১৩ দল।

এদিকে প্রথম দল হিসেবে গ্রুপ পর্ব থেকে ইতোমধ্যেই বিদায় নিয়েছে স্বাগতিক দেশ কাতার। নক-আউট পর্ব নিশ্চিতের সম্ভাবনায় মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) মাঠ নামবে গ্রুপ ‘এ’ ও ‘বি’-এর বাকি সাত দল। নক-আউট পর্ব নিশ্চিত করতে কঠিন সমীকরণের সামনে দাঁড়িয়ে দলগুলো। গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে একই সময়ে মুখোমুখি হবে দলগুলো। তাই সমীকরণ আরও বেশি রোমাঞ্চকর।

‘এ’ গ্রুপে স্বাগতিকদের মুখোমুখি হবে নেদারল্যান্ডস। এই ম্যাচে জিতলেই শেষ ষোলোয় পৌঁছে যাবে ডাচরা। আর লজ্জার বিশ্বরেকর্ড গড়ে বিদায় নেবে স্বাগতিকরা। ড্র করলেও নেদারল্যান্ডসের সম্ভাবনা থাকছে।

একই সময়েই তুমুল রোমাঞ্চকর এক ম্যাচে মুখোমুখি হবে সেনেগাল ও ইকুয়েডর। যে দল জিতবে, তারাই শেষ ষোলো পৌঁছে যাবে। ড্র করলেও ইকুয়েডরের সম্ভাবনা থাকবে। কিন্তু বাদ পড়বে সেনেগাল। কারণ, ডাচদের পয়েন্ট ৪ ও ডাচরা গোল ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে। এ ক্ষেত্রে নেদারল্যান্ডস স্বাগতিক কাতারের সঙ্গে ২-০ গোল ব্যবধানে হারলে ড্র করেও সেনেগাল নকআউট পর্বে যেতে পারবে।

কঠিন সমীকরণে যুক্তরাষ্ট্রের মুখোমুখি হবে ইরান। জিতলেই শেষ ষোলোয় পৌঁছে যাবে ইরান। ড্রয়েও ইরানের সম্ভাবনা থাকছে। আর বাদ পড়বে যুক্তরাষ্ট্র। তবে ড্র করলে গ্রুপ পর্বের অন্য দুই দলের ম্যাচের দিকে চেয়ে থাকতে হবে ইরানের। এক্ষেত্রে ওয়েলস যদি জিতে যায় আর ইরান ড্র করে তাহলে ইরান বাদ পড়বে। কারণ, গোল ব্যবধানে ইরান পিছিয়ে রয়েছে।

একই সময়ে মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড ও ওয়েলস। জিতলেই শেষ ষোলো নিশ্চিত করবে ইংলিশরা। ড্র করলে বাদ ওয়েলস। আর ইংলিশদের তাকিয়ে থাকতে হবে ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাচের দিকে। অন্যদিকে এই ম্যাচে জিতলে নকআউটের সম্ভাবনা রয়েছে গ্যারেথ বেলের ওয়েলসের। এক্ষেত্রে ড্র হতে হবে ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার ম্যাচ। ‘বি’ গ্রুপের শেষ ম্যাচে ওয়েলস হেরে গেলে ইংল্যান্ড এবং ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার বিজয়ী দল শেষ ষোলো নিশ্চিত করবে।