করোনা সংক্রমণ রোধে চীনে নতুন প্রযুক্তি

করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ দেখা দিয়েছিলো চীনে। এরপর থেকেই ভাইরাসটির সংক্রমণ রোধে দেশটিতে নেওয়া হয়েছে বিভিন্ন পদক্ষেপ। এবার নতুন এক কঠোর পদক্ষেপ নিলো তারা। ‘ফেস রিকগনিশন’ প্রযুক্তি ব্যবহার করে মানুষের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করে করোনার সংক্রমণ রোধ করার চেষ্টা করছে দেশটি। খবর এপি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রযুক্তিটি ব্যবহার করে কর্তৃপক্ষ দেখছে, সাধারণ মানুষ কোথায় যাচ্ছে, বাড়িতে কখন ঢুকছে বা বের হচ্ছে। কখন তারা সুপারমার্কেটে যাচ্ছে, কখন গণপরিবহনে উঠছে তা জানতে ব্যবহার করা হচ্ছে ‘ফেস রিকগনিশন’ প্রযুক্তি। আর এই প্রযুক্তির সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয়েছে মানুষের স্বাস্থ্যসংক্রান্ত তথ্য।

চীন তার জনগণকে নজরদারিতে রাখার ক্ষেত্রে অন্য অনেক দেশের চেয়ে এগিয়ে। এ জন্য বিগত ৫ বছরে জনসমাগমের স্থানগুলোয় ২০ কোটির বেশি সিসিটিভি স্থাপন করেছে দেশটির সরকার। বলা হয়ে থাকে, এর মাধ্যমে দেশের প্রায় সব জনসমাগম স্থল ক্যামেরার আওতায় আনতে সক্ষম হয়েছে সরকার।

জানা যায়, এই ‘ফেস রিকগনিশন’ প্রযুক্তি ব্যবহারের সঙ্গে সঙ্গে কিউআর কোড প্রযুক্তিও ব্যবহার করা হচ্ছে। যার মধ্য দিয়ে ওই ব্যক্তির করোনার পরীক্ষার প্রতিবেদন এবং তিনি কার কার সংস্পর্শে আসছেন, সেটাও জানা যাচ্ছে।

প্রদেশের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে বলেছে, যেসব এলাকা গুরুত্বপূর্ণ, সেসব এলাকায় ‘ফেস রিকগনিশন’ ক্যামেরা, স্মার্ট ডোর লক ও রাস্তায় গতিরোধক ব্যবহার করা হচ্ছে নিরাপত্তার জন্য।

এসব প্রযুক্তির ব্যবহারে চীন ইতিবাচক ফলাফলই পেয়েছে বলা যায়। কারণ দেশটিতে ভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ হলেও এখন পর্যন্ত সংক্রমিত হয়েছে ৯২ হাজার ১১৯ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৬৩৬ জনের।