কিশোরীকে ধর্ষণ, ৫ দিনেও গ্রেপ্তার হয়নি আসামি

কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা দায়েরের ৫ দিনেও গ্রেপ্তার হয়নি একমাত্র আসামি। ঘটনাটি ঘটেছে মাদারীপুরে। মামলার একমাত্র আসামি টমেন ত্রিপুরা (২০) গ্রেপ্তার না হওয়ায় ন্যায় বিচার নিয়ে শঙ্কিত নির্যাতিতার পরিবার। অভিযুক্ত টমেন ত্রিপুরা খাগড়াছড়ি জেলার উপেন্দ্র ওরফে পাটানর ত্রিপুরার ছেলে।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছ, গত ৫ ফেব্রুয়ারি ১২ বছর বয়সী কিশোরীকে একা পেয়ে টমেন ত্রিপুরা জোর করে নিজের থাকার ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে এ ঘটনা কাউকে বললে কিশোরীকে হত্যার হুমকি দেয় টমেন। ভয়ে ওই কিশোরী প্রথমে কিছু না জানিয়ে ঘটনা আড়াল করার চেষ্টা করে। ওই কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হলে এলাকায় জানাজানি হয় বিষয়টি এবং এর কিছুদিন পর সেবাশ্রম ছেড়ে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত ব্যক্তি।

জানা গেছে, গত ২৬ মার্চ রাতে এ ঘটনার বিচার চেয়ে কিশোরীর মা মাদারীপুর সদর মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। কিন্তু মামলার ৫ দিনেও একমাত্র আসামিকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

নির্যাতিতার পরিবার জানায়, ধর্ষণের ঘটনার বিচার পাওয়া নিয়ে শঙ্কায় আছি। একমাত্র আসামিকে এখনো পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারেনি। এছাড়া এলাকার লোকজন বিষয়টি নিয়ে চাপের মুখে রেখেছে। দাবি একটাই, শুধু ন্যায় বিচার চাই।

মাদারীপুর সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ কামরুল ইসলাম মিঞা জানিয়েছেন, ধর্ষণের ঘটনায় বাদী মামলায় অন্তঃসত্ত্বার কথা উল্লেখ করেছেন। ইতোমধ্যে নির্যাতিতার মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। আসামি ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।