কোয়ারেন্টিনে ধর্ষণের শিকার সেই নারীর আত্মহত্যার চেষ্টা

খুলনা পিটিআই কোয়ারেন্টিন সেন্টারে ধর্ষণের শিকার ভারতফেরত সেই নারীর আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে (১৮ মে) তিনি আত্মহত্যার চেষ্টা করলে কোয়ারেন্টিন সেন্টারে থাকা অন্যান্য নারী এবং নারী পুলিশ সদস্যরা তাকে রক্ষা করেন।

আজ বুধবার (১৯ মে) খুলনার ডিসি মোহাম্মদ হেলাল হোসেন গণমাধ্যমকে জানান, ওই তরুণী মঙ্গলবার রাতে আত্মহত্যার চেষ্টা করলে কোয়ারেন্টিনে থাকা অন্যরা তাকে রক্ষা করেন।

গত ৪ মে ওই তরুণী ভারত থেকে বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে আসেন। পরে তাকে খুলনা পিটিআই সেন্টারে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়।

গত ১৩ মে রাত ১টা থেকে সকাল ৮টা পর্যন্ত খুলনা প্রাইমারি ট্রেনিং ইন্সটিটিউটের (পিটিআই) মহিলা হোস্টেলে ভারতফেরত কোয়ারেন্টিনে অবস্থানরতদের নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন মোকলেছুর রহমান। ডিউটিতে থাকাকালীন উক্ত এএসআই কোয়ারেন্টিনে অবস্থানরত এক তরুণীর কক্ষে প্রবেশ করে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরের রাতে আবারও ওই তরুণীর কক্ষে প্রবেশ করে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় ওই তরুণী চিৎকার করলে এএসআই মাকলেছুর দ্রুত নিচে নেমে যায়। ঘটনাটি পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নজরে আসলে প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা মেলে।

এরপর ১৭ মে ওই তরুণী বাদী হয়ে খুলনা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। মামলার পর খুলনা মেট্রোপলিটন থানা পুলিশ এএসআই মোখলেছকে গ্রেফতার করে। এরপর আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।