খুলনা বিভাগে ঈদের পরে বেড়েছে করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত

ঈদের আগের সপ্তাহে করোনা সংক্রমণ কিছুটা কমে গেলেও পরের সপ্তাহে বেড়েছে এ হার। মৃত্যুর ক্ষেত্রে বেড়ে তা তিনগুণে দাঁড়িয়েছে। যা নিয়ে উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে এ অঞ্চলের মানুষ।

খুলনা বিভাগে শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে ১০৪ জন। এই নিয়ে বিভাগের ১০ জেলায় করোনায় সংক্রমিত হয়েছে ৩২ হাজার ৯৭০ জন। এই সময়ে বিভাগে ৪ জন করোনায় মারা যান। এ নিয়ে করোনায় মোট মৃত্যু হয়েছে ৬১৪ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে খুলনায় ৪৫ জন, বাগেরহাটে ১জন, যশোরে ১জন, ঝিনাইদহে ৭জন, কুষ্টিয়ায় ২৩ জন, মেহেরপুরে ৪ জন, চুয়াডাঙ্গা ১০ জন এবং সাতক্ষীরায় ১৩ জন রয়েছেন।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (রোগনিয়ন্ত্রণ) ফেরদৌসী আক্তার শনিবার এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্র জানায়, ঈদের পর গত এক সপ্তাহে (১৫-২১ মে) খুলনা বিভাগে ৫৯৭ জনের শরীরে করোনার সংক্রমণ হয়েছে। এ সময় বিভাগে করোনায় মারা গেছেন ১৬ জন। এর মধ্যে শুধু ২১ মে মারা যায় ১০ জন। ঐ দিনে ঢাকা বিভাগে মারা যায় ৩ জন। আর চট্টগ্রাম বিভাগে ৬জন, রাজশাহী বিভাগে ৪জন ও ঢাকা বিভাগে ৩জন মারা গেছেন।

অথচ ঈদের আগের সপ্তাহে (৮-১৪ মে) খুলনা বিভাগে করোনায় সংক্রমিত হয় ৪৮৪ জন। ঐ সময় করোনায় মারা যান ৫জন।

খুলনা মেডিক্যাল কলেজের উপাধ্যক্ষ এবং করোনা প্রতিরোধ ও চিকিৎসা ব্যবস্থাপনা কমিটির সমন্বয়কারী ডা. মেহেদি নেওয়াজ বলেন, ‘ঈদের পরেই করোনা সংক্রমণ বাড়ছে। এটা উদ্বেগজনক। আমাদের এ সংক্রমণ মোকাবিলায় খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে বর্ধিত আইসিইউ ও শয্যার কার্যক্রম শুরু করতে এক সপ্তাহ লাগবে। আশা করা যায় এক সপ্তাহ পরই চালু করতে পারবো বর্ধিত আইসিইউ ও শয্যা।’