টাইম ম্যাগাজিনের পারসন অব দ্য ইয়ার ইলন মাস্ক

বিখ্যাত মার্কিন সাময়িকী টাইমের নজরে ২০২১ সালের বর্ষসেরা ব্যক্তিত্ব বা পারসন অব দ্য ইয়ার হয়েছেন টেসলা সিইও ইলন মাস্ক। সোমবার (১৩ ডিসেম্বর) এ ঘোষণা দিয়েছে টাইম কর্তৃপক্ষ।

১৯২৭ সাল থেকে প্রতি বছর সমাজে বিভিন্নভাবে প্রভাব ফেলা ব্যক্তি, গোষ্ঠী, বস্তু বা উদ্যোগকে বর্ষসেরা ঘোষণা করে আসছে টাইম। এই প্রভাব ইতিবাচক-নেতিবাচক উভয় ধরনেরই হতে পারে। টাইমের নজরে পারসন অব দ্য ইয়ার হচ্ছেন এমন কেউ, যে সংবাদ বা মানবজীবনে সবচেয়ে বেশি প্রভাব ফেলেন, তা সে ভালো বা খারাপ যেটাই হোক না কেন।

ম্যাগাজিনের এডিটর-ইন-চিফ এডওয়ার্ড ফেলসেনথাল জানিয়েছেন, একটি অস্তিত্ব সংকটের সমাধান, টেক টাইটানদের যুগের সম্ভাবনা ও সংকটগুলোকে চিত্রায়িত করা, সমাজের সবচেয়ে সাহসী পরিবর্তন পরিচালনার জন্য টাইমের নজরে ২০২১ সালের সেরা ব্যক্তিত্ব ইলন মাস্ক।

করোনাকালীন ২০২১ সাল অনেকের জন্য খারাপ গেলেও ইলন মাস্কের জন্য আশাতীত ভালো গেছে। এ বছর তার কোম্পানি বিশ্বের সবচেয়ে দামী ইলেক্ট্রিক গাড়িনির্মাতা হয়ে উঠেছে। একই বছর মাস্কের রকেট কোম্পানি পুরোটাই বেসরকারি ক্রু নিয়ে মহাকাশ ঘুরে এসেছে।

টেসলার পাশাপাশি ইলন মাস্ক স্পেসএক্সের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান নির্বাহী। ব্রেইন-চিপ স্টার্টআপ নিউরালিংক এবং অবকাঠামো নির্মাতা বোরিং কোম্পানির নেতৃত্বও তার হাতে।

এ বছর টেসলার বাজারমূল্য এক ট্রিলিয়ন বা এক লাখ কোটি ডলারের বেশি বেড়েছে, যার ফলে এর মূল্য দাঁড়িয়েছে ফোর্ড মোটর ও জেনারেল মোটরসের সম্মিলিত মূল্যের চেয়েও বেশি।

টেসলা প্রতি বছর লাখ লাখ ইলেক্ট্রিক গাড়ি বানিয়ে থাকে এবং করোনা সংকটে সরবরাহ ব্যবস্থা স্বাভাবিক রাখায় তারা প্রতিদ্বন্দ্বী অনেক কোম্পানির চেয়েই বেশি সক্ষমতা দেখিয়েছে। টেসলার কারণে অনেক নবীন ভোক্তা ইলেক্ট্রিক গাড়ির দিকে ঝুঁকছে এবং খ্যাতনামা পুরোনো কোম্পানিগুলো ইলেক্ট্রিক গাড়ি তৈরিতে আগ্রহী হয়ে উঠেছে।

টিভি অনুষ্ঠানে উপস্থাপনার পাশাপাশি টুইটারে সরব উপস্থিতি রয়েছে টেসলা সিইওর। মাঝেমধ্যে নানা বিষয় নিয়ে মিম শেয়ার করতে দেখা যায় তাকে। তার টুইট নিয়ে অনেকবারই বিতর্ক তৈরি হয়েছে। টুইটারে তার অনুসারী রয়েছে ৬ কোটি ৬০ লাখেরও বেশি।

পারসন অব দ্য ইয়ার ছাড়াও আরও কয়েকটি ক্যাটাগরিতে বিজয়ীর নাম ঘোষণা করেছে টাইম কর্তৃপক্ষ। তাদের দৃষ্টিতে এ বছর এন্টারটেইনার অব দ্য ইয়ার হয়েছেন তরুণ পপ তারকা অলিভিয়া রড্রিগো, মার্কিন জিমন্যাস্ট সিমোন বাইলস হয়েছেন অ্যাথলেট অব দ্য ইয়ার এবং টিকা গবেষকদের ঘোষণা করা হয়েছে হিরোজ অব দ্য ইয়ার।

গত বছর মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং ভাইস-প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস যৌথভাবে পারসন অব দ্য ইয়ার হয়েছিলেন। ফেসবুক সিইও মার্ক জুকারবার্গ, অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোসও অতীতে এই খেতাব জিতেছেন।

সূত্র: রয়টার্স
প্রভাতনিউজ/এনজে