ট্রেনে নারীদের জন্য কামরার নির্দেশনা চেয়ে রিট

নারীদের নিরাপদে রেল ভ্রমণের জন্য ট্রেনে তাদের জন্য আলাদা কামরা বরাদ্দের বাস্তবায়ন চেয়ে রিট আবেদন করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মোঃ আজমল হোসেন খোকন এ রিট দায়ের করেন। বাংলাদেশ রেলওয়ে আইন, ১৮৯০ অনুসারে ট্রেনে নারী যাত্রীদের জন্য আলাদা কামরা বরাদ্দের বিধান রয়েছে। সেই বিধানের বাস্তবায়ন চেয়ে হাইকোর্টে এই রিট দায়ের করা হয়েছে।

রিটে রেল মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব, রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক ও রেলওয়ে পরিদর্শককে বিবাদী করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আইনজীবী মোঃ আজমল হোসেন খোকন। তিনি জানান, আগামী সপ্তাহের যেকোনো দিনে হাইকোর্টের একটি দ্বৈত বেঞ্চে এ বিষয়ে শুনানি অনুষ্ঠিত হতে পারে।

রিট আবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ রেলওয়ে আইন, ১৮৯০ এর ৬৪ ধারায় নারীদের জন্য একটি কামরা বরাদ্দ রাখার বিধান থাকলেও এখন পর্যন্ত আইনটি বাস্তবায়ন হয়নি।

এতে বলা হয়, ‘যেসব নারীরা দুধের শিশু নিয়ে ট্রেনে ওঠেন, তারা নির্দ্বিধায় তার শিশুকে দুধ পান করাতে পারেন না। কারণ শত শত নারী-পুরুষে ঠাসা রেলের কামরায় নিজেরা বসতেই অস্বস্তিবোধ করেন। সেখানে শিশুদের দুধ পান করানো আরও কঠিন। তাই আলাদা কামরা বরাদ্দ হলে শিশুদের দুধ পান করাতে তাদের কোনো সমস্যা হবে না।’

রিট আবেদনে আরও বলা হয়েছে, ট্রেনে আলাদা কামরা থাকলে ভ্রমণের সময় যদি নামাজের সময় হয়, তখন তারা নিয়মিত সেখানে নামাজও আদায় করতে পারবেন। রাতে কোনও নারী একা ট্রেনে ভ্রমণ করতে চাইলে, তারা নিরাপত্তাহীনতায় ভোগেন। তাই নারীদের জন্য আলাদা কামরা বরাদ্দ দিলে নারীরা তাদের কামরায় নির্দ্বিধায় উঠে তাদের আসনে বসতে পারবে। এতে তাদের নিরাপত্তা নিয়ে ঝুঁকিও কমবে।