ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের বিরুদ্ধে শাহবাগের পর এবার পল্টনে মামলা

নুরুল হক নুর

ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের বিরুদ্ধে শাহবাগের পর এবার পল্টন থানায় মামলা হয়েছে। ‘যারা আওয়ামী লীগ করে তারা কেউ মুসলমান নয়- তারা ধান্দাবাজ, চাঁদাবাজ, মাদক ব্যবসায়ী, চিটার ও বাটপার’ বলে ফেসবুকে বক্তব্য দেওয়ায় রোববার (১৮ এপ্রিল) ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে এ মামলা হয়েছে।

আজ সোমবার (১৯ এপ্রিল) দুপুরে পল্টন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু বকর সিদ্দিক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ইলিয়াস হোসেন নামে এক ব্যক্তির করা এ মামলার একমাত্র আসামি নুর।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, গত ১৫ এপ্রিল রাত ১০টার দিকে দেখতে পাই সাবেক ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর (২৯) ফেসবুক পেজে লাইভ করছেন।

সেই ভিডিওটি ডাউনলোড করে দেখতে পাই, নুর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কর্মী ও সমর্থকদের ধর্মীয় মূল্যবোধে আঘাত হেনে আপত্তিকর, আক্রমণাত্মক বক্তব্য দিচ্ছেন। সেখানে তিনি বলেন, ‘যারা আওয়ামী লীগ করে তারা ধান্দাবাজ, চাঁদাবাজ, মাদক ব্যবসায়ী, চিটার, বাটপার। প্রকৃত কোনো মুসলমান আওয়ামী লীগ করতে পারে না।’ উস্কানিমূলক বক্তব্যসহ ধর্মীয় মূল্যবোধে আঘাত হেনে দেওয়া এ আক্রমণাত্মক বক্তব্যের ভিডিও অজ্ঞাতনামা অসংখ্য ফেসবুক আইডি ও পেজ থেকে পোস্ট ও শেয়ার করা হয়েছে। এতে অসংখ্য সাধারণ ফেসবুক ব্যবহারকারী লাইক ও কমেন্টের মাধ্যমে তাদের মতামত প্রকাশ করেছেন। যার ভেতর অনেক সরকার ও রাষ্ট্রবিরোধী কমেন্টও রয়েছে। এমন বক্তব্য আওয়ামী সমর্থন করা মুসলমানদের ধর্মীয় মূল্যবোধে আঘাত হেনেছে। তাই মামলাটি রজু করার আবেদন করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ওসি আবু বকর বলেন, মামলার অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। অভিযোগের সত্যতার প্রমাণ পেলে আইন অনুযায়ী যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন…গাজীপুরে হেফাজতের আমিরসহ তিন ভাই গ্রেফতার

ওই লাইভে নুর আরও বলেন, ‘তারা (আওয়ামী লীগ) সপ্তাহে একদিন নামাজ পড়েন, কিন্তু কখনও পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়েন না। তারা ঘুষ নেন, চাঁদাবাজি, মাদক চোরাচালান এবং টেন্ডার ব্যবসা করেন। আবার নিজেদের মুসলমানও দাবি করেন। কোনো মুসলমান আওয়ামী লীগের সমর্থন করতে পারেন না। যারা আওয়ামী লীগ সমর্থন করেন, তারা প্রকৃত মুসলমান নয়।’

ফেসবুকে দেওয়া এমন বক্তব্যের জন্য রোববার (১৮ এপ্রিল) রাতে ফেসবুক লাইভ এসে তিনি ক্ষমা প্রার্থনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর। এর আগেই নুরের বক্তব্যে শাহবাগ থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা তথ্য-প্রযুক্তি আইনে নুরকে একমাত্র আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মোঃ আশরাফুল ইসলাম সজীব।