ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার আন্দোলনে ছাত্রলীগের বাঁধা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল এবং সারাদেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবিতে হল-শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দাও আন্দোলনের পূর্বঘোষিত কর্মসূচিতে বাঁধা দিয়েছে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা।

রবিবার (৬ জুন) সকাল ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এ বাঁধা দেয়। আন্দোলনকারীদের সরিয়ে ‘মাদক, সন্ত্রাস ও মৌলবাদ মুক্ত ক্যাম্পাসের’ দাবিতে কর্মসূচী পালন করেছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে কর্মসূচী থেকে সরে এসেছেন বলে জানিয়েছেন হল খোলার দাবিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা জানান, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সহ সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল ও সারাদেশে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার দাবিতে আমরা বিক্ষোভ সমাবেশের ডাক দিয়েছিলাম। কর্মসূচীর অংশ হিসেবে ব্যানার নিয়ে রাজু ভাস্কর্যে দাঁড়ালে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আরেকটি ব্যানার নিয়ে আমাদের সামনে চলে আসে। আমরা কর্মসূচী করতে চাইলে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ করেন। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে ব্যানার নিয়ে রাজু ভাস্কর্য ত্যাগ করে টিএসসি চত্বরে চলে আসি আমরা। সেখানে দীর্ঘ সময় অপেক্ষার পর ছাত্রলীগের কর্মসূচী শেষ না হওয়ায় আমরা চলে যাই।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে কিছু শিক্ষার্থী হল খোলার দাবিতে আন্দোলন করতে আসলে ছাত্রলীগের কিছু নেতা-কর্মী সেখানে তাদের সামনে গিয়ে দাঁড়িয়ে যায়। পরে সেখান থেকে ওইসব শিক্ষার্থীরা সরে আসে।

আন্দোলনের বাঁধা দেওয়ার বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বলেন, ‘সাধারণ শিক্ষার্থীর ব্যানারে মাদক, সন্ত্রাস ও মৌলবাদের বিরুদ্ধে কিছু শিক্ষার্থী রাজু ভাস্কর্যে কর্মসূচী পালন করেছে। এটা তাদের পূর্বঘোষিত কর্মসূচী ছিলো। তবে বাঁধা দেওয়ার কথা বলে ছাত্রলীগকে অভিযুক্ত করার চেষ্টা করা হচ্ছে। ক্যাম্পাস খোলা নিয়ে একটা ধর্মান্ধ গোষ্ঠী রাজনৈতিক ফায়দা নেওয়ার চেষ্টা করছে।’