তীরে এসে তরী ডুবল হায়দরাবাদের

হায়দরাবাদ,

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) টানা দ্বিতীয় ম্যাচে জয়ের দ্বার প্রান্তে এসে হারতে হলো রান তাড়া করতে নামা দলকে।

বুধবার রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর দেয়া ১৫০ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ছয় রানে হেরেছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।

আগের দিন মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের বিপক্ষে ১৫২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করে ১০ রানে হেরেছিল কলকাতা নাইটরাইর্ডাস।

চেন্নাইয়ে এমএ চিদম্বরম স্টেডিয়ামে খেললেও আলাদা পিচে নেমেছিল ব্যাঙ্গালুরু-হায়দরাবাদ। ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছিল এই পিচে বড় স্কোরের ম্যাচ দেখা যাবে।

তবে হায়দরাবাদের বোলাররা দাপট দেখান। ওপেনার বিরাট কোহলির ব্যাট থেকে ২৯ বলে ৩৩ রানে আসে। অন্যদিকে শেষ দিকে পর্যন্ত ক্রিজে থেকে ৪১ বলে ৫৯ রানের তোলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। এছাড়া কেউই আহামরী রান করতে পারেননি। ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৪৯ রান সংগ্রহ করে রয়েল চ্যালেঞ্জার্সরা।

সানরাইজার্সের হয়ে তিনটি উইকেট নেন জেসন হোল্ডার। দুটি উইকেট শিকার করেন রশিদ খান।

জবাবে ৯ বলে ১ রান করে শুরুতেই ফিরে যান ঋদ্ধিমান সাহা। মনীষ পান্ডেকে নিয়ে দলের হাল ধরেন অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার। ১৪তম ওভারের দ্বিতীয় বলে দলীয় ৯৬ রানে বিদায় নেন তিনি। তার আগে জয়ের ভীত গড়ে দিয়ে ৩৭ বলে ৫৪ রানের ইনিংস খেলেন ওয়ার্নার।

১৭তম ওভারে তিনটি উইকেট তুলে খেলার মোড় পাল্টে দেন শাহবাজ আহমেদ। ১১৫ রানের মাথায় বিদায় নেন জনি বেয়ারেস্টো ও মনীষ পান্ডে। এক রান যোগ হতে আউট হন আবদুল সামাদও।

আরও পড়ুন…লিভারপুলের বিদায়ে উয়েফার সেমি-ফাইনালে রিয়াল

১৩ বলে ১২ রান করেন বেয়ারেস্টো। ৩৯ বলে ৩৮ রানের ইনিংস খেলেন পান্ডে। ২ বল খেলে রানের খাতা না খুলেই ফিরেন সামাদ।

এরপর ৫ বলে ৩ রান করে বিদায় নেন বিজয় শঙ্কর। জেসন হোল্ডার ৫ বলে খেল চার রান করেন।

৯ বলে ১৭ রান করে রশিদ খান আশা দেখান। প্রথম বলেই ফিরেন শাহবাজ নাদিম। ২ বলে ২ রান করে অপরাজিত ছিলেন ভুবনেশ্বর কুমার। তার সঙ্গে ক্রিজে ছিলেন টি নাটারাজন।

২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রানের বেশি করতে পারেনি সানরাইজার্স।

শাহবাজ আহমেদ তিনটি উইকেট শিকার করেন। মোহাম্মদ সিরাজ ও হার্শাল প্যাটেল দুটি উইকেট নেন। একটি উইকেট আদায় করেন জেমিসন।