নারিকেল দেয়ার কথা বলে শিশুকে ধর্ষণ

বাড়ির পাশে খেলতে থাকা পাঁচবছরের শিশুকে নারকেল দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে নিজ বাড়িতে ডেকে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করেছে হাবিবুর রহমান নামের প্রতিবেশী এক যুবক। পরে থানায় মামলা হলে ধর্ষককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে কুড়িগ্রাম জেলার ভুরুঙ্গামারী উপজেলার সোনাহাট ইউনিয়নের চরবলদিয়া (ফকিরপাড়া) নামক গ্রামে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গেল ২৫ নভেম্বর বুধবার বিকেল দেড়টার দিকে নিগৃহীত পাঁচ বছরের শিশুটি বাড়ির পাশে খোলা মাঠে খেলা করছিলো। এ সময় প্রতিবেশী মৃত সায়েদ আলীর সন্তান দুই সন্তানের জনক হাবিবুর রহমান নারিকেল দেয়ার প্রলোভন দিয়ে নিজ বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায় শিশুটিকে। পরে তার শোয়ার রুমে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। এ সময় মেয়েটি কান্নাকাটি শুরু করলে ধর্ষক তাকে বাড়ির বাইরে রেখে পালিয়ে যায়।

পরে মেয়েটির নানী ফরিদা বেগম শিশুটিকে সেখান থেকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসে। এ সময় পরিবারের সকলকের সামনে শিশুটি তার সঙ্গে ঘটে যাওয়া পৈচাশিক ঘটনার বিবরণ দেয়। পরে শিশুটিকে ভুরুঙ্গামারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

পরদিন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শিশুটির বাবা বাদী হয়ে ভুরুঙ্গামারী থানায় শিশু ও নারী নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করে।  পরে ভুরুঙ্গামারী থানার পুলিশ অভিযান চালিয়ে আজ শনিবার দুপুর ১২টার দিকে অভিযুক্ত ধর্ষক হাবিবুর রহমানকে চরবলদিয়া গ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়।

ভুরুঙ্গামারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিয়ার রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।