নেপালে শিরোপার হাতছানি, ২১ বছরের খরা কাটবে কি?

নেপালে ত্রিদেশীয় ফুটবল সিরিজে কিরগিজস্তান অনূর্ধ্ব-২৩ দলকে হারিয়ে দারুণ সূচনা করে বাংলাদশে। আর দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নামার আগেই ফাইনালে খেলা নিশ্চিত করে লাল-সবুজের দল। ফাইনালের আগে স্বাগতিক নেপালের বিপক্ষে নিয়ম রক্ষার ম্যাচে ড্র করে বাংলাদেশ। আজ সোমবার শিরোপার লড়াইয়ে নামেছে বাংলাদেশ।

ফাইনালের আগে স্বাগতিক নেপালের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করায় বাংলাদেশের আত্মবিশ্বাস অনেকটাই বেড়ে গেছে।

কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামে আজ সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় টুর্নামেন্টের ফাইনালে স্বাগতিক নেপালের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। একটি জয় ও ড্রয়ে ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ। টানা দুই ড্রয়ে ফাইনালে ওঠে নেপাল।

২১ বছর পর বিদেশের মাটিতে শিরোপা জয়ের সুযোগ বাংলাদেশের সামনে। ১৯৯৯ সালে সাফ গেমস ফুটবলের ফাইনালে এই কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামেই নেপালকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল জুয়েল রানার দল। আজ  জিতলে দীর্ঘদিন পর শিরোপার সাফল্য পাবে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া শিরোপা জিততে খুবই আশাবাদী। গতকাল ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে ট্রফিটি জিততে পারলে আমাদের জন্য বড় পাওয়া হবে। আমরা আশাবাদী শিরোপা জিততে। আমাদের জন্য ভালো সুযোগ এটি।’

অবশ্য বাংলাদেশ যে খুব ভালো ফুটবল খেলে ফাইনালে উঠেছে তা বলা যাবে না। কিরগিজস্তান অনূর্ধ্ব–২৩ দলের বিপক্ষে জিতেছে আত্মঘাতী গোলে। আর নেপালের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করে।

দলের কোচ জেমি ডে বলেন, ‘শিরোপা নিয়ে আমি মোটেই চিন্তিত নই। জিততে পারলে দারুণ হবে। সেটা যদি নাও হয়, যে লক্ষ্য নিয়ে নেপালে এসেছিলাম, সেটা পূরণ করার সন্তুষ্টি নিয়েই ফিরব। এখানে দলের সবাইকে সমান ম্যাচ খেলার সুযোগ দিতে চাই, যেন তারা জুনে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের জন্য প্রস্তুত হতে পারে।’

সম্ভাব্য বাংলাদেশ একাদশ : আনিসুর রহমান জিকো, মেহেদী হাসান, রিমন হোসেন, টুটুল হোসেন বাদশা, মাশুক মিয়া জনি, বিপলু আহমেদ, মতিন মিয়া, সোহেল রানা, বিশ্বনাথ ঘোষ, হাবিবুর রহমান সোহাগ ও সাদ উদ্দিন।