ফুলবাড়ীতে তালা ভেঙ্গে পাঁচটি গরু চুরি।

মেহেদী হাসান,ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে গরুর ঘরের তালা ভেঙ্গে ৩টি গাভি ও ২টি এড়েঁ গরুর বাছুরসহ মোট পাঁচটি গরু চুরির ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার দিবাগত রাতে উপজেলার এলুয়াড়ী ইউনিয়নের নবগ্রামের কৃষক আমজাদ মন্ডলের ছেলে প্রভাষক নাজমুল হক এর বাড়ীতে এই দুধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটে। এনিয়ে ওই গ্রামে গত দুই বছরে ২৪টি গরু চুরি হয়েছে বলে অভিযোগ গ্রামবাসীদের। এতে অতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন তারা। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও স্থানীয়রা জানায়,গত শুক্রবার দিবাগত রাতে পরিবারের লোকজন ঘুমিয়ে পড়লে বৃষ্টি পাতের সময়,বাড়ীর লোকজন ঘুমে থাকার সুযোগে চোরেরা বাড়ীর প্রাচির টপকে ভেতরে প্রবেশ করে প্রধান ফটকের একটি তালা এবং গোয়াল ঘরের লোহার দরজার তিনটি তালা ভেঙ্গে,৩টি গাভী ও ২টি এড়ে বাছুর সহ মোট পাঁচটি গরু চুরি করে নিয়ে গেছে। যার বাজার মূল্য প্রায় সাড়ে তিন লাখ টাকা। পরে টের পেয়ে বিষয়টি তাতখনিক ৯৯৯ এ ফোন করে পুলিশকে জানায়। খবর পেয়ে শনিবার সকাল ১১ টায় ফুলবাড়ী থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরে বিষয়টি জানতে পেরে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মঞ্জুরায় চৌধুরী ও এলুয়াড়ী ইউপি চেয়ারম্যান মাওলানা নবীউল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। গরুর মালিক নাজমুল হকের ভাই মহসিন রেজা জানান,গত ২০২০সালেও তাদের একইভাবে দশটি গরু একদিনে চুরি হয়। সেই সময় তার ভাই মিজানুর রহমান বাদী হয়ে থানায় মামলা করলে পাঁচজনকে আটক করা হয়। কিন্তু আজও উদ্ধার হয়নি সেই গরু। এনিয়ে গত দুই বছরে মোট ১৫টি গরু চুরি হলো তাদের। ওই গ্রামের আলিমুদ্দিনের ছেলে আবুল কালাম বলেন,গত বছরের ২৭ জুলাই তার পাঁচটি গরু চুরি হয়েছে। তিনি বলেন, একই ভাবে এই গ্রামের জাহিদুল ইসলামের ২টি ও আতাউর রহমানের ২টি গরু সহ এই নবগ্রাম থেকে গত দুই বছরে ২৪টি গরু চুরি হয়েছে। যা আজও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। তিনি বলেন চুরির কারনে তিনি আর গরু পালন করেন না। উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মঞ্জুরায় চৌধুরী বলেন,কৃষকের মুল দুটি আয়ের উৎসের মধ্যে একটি ধান ও অপরটি গবাদিপশু (গরু), বারবার একটি গ্রাম থেকে এভাবে একেরপর এক গরু চুরির ঘটনা, খুব দুঃখজনক। এতে তারা ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে দ্রæত অপরাধীদের আটক করা সহ গরু উদ্ধারের দাবী জানিয়েছেন তিনি। এলুয়াড়ী ইউপি চেয়ারম্যান মাওলানাঃ নবীউল ইসলাম বলেন, গ্রামের গরিব কৃষক গবাদিপশু পালন করে তাদের জিবীকা নির্বাহ করে, কিন্তু একের পর এক গরু চুরির ঘটনায় তারা গরু পালন করতে এখন আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। এবিষয়ে জানতে চাইলে ফুলবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) শফিকুল ইসলাম জানান, ৯৯৯ এ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পার্শবর্তি সকল থানায় খবর দেয়া হয়েছে। গরু উদ্ধারে অভিযান চলছে। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে।