ফের মূল্য বৃদ্ধি, পেঁয়াজের অগুনে পুড়ছে জনগণ

ভারতীয় এবং মিয়ানমার থেকে আসা পেঁয়াজের দামও বৃদ্ধি পেয়েছে। বলা হচ্ছে দেশি পেঁয়াজের মৌসুম শেষ হওয়ায় পণ্যের সংকট তৈরি হয়েছে। তাই বাড়ছে দাম।

হঠাৎ করেই পেঁয়াজের দাম বাড়ছে। পেঁয়াজের অগুনে পুড়ছে জনগণ। দেশি পেঁয়াজের দাম কেজিতে বেড়েছে অন্তত ২০ থেকে ২৫ টাকা। প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজের দাম এখন ৮০ টাকা।

ভারতীয় এবং মিয়ানমার থেকে আসা পেঁয়াজের দামও বৃদ্ধি পেয়েছে। বলা হচ্ছে দেশি পেঁয়াজের মৌসুম শেষ হওয়ায় পণ্যের সংকট তৈরি হয়েছে। তাই বাড়ছে দাম।

জনগণের নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্য পেঁয়াজ। বলা যায়, পেঁয়াজ প্রতিদিনের রান্নায় অপরিহার্য এক পণ্য। তাই চাহিদাও বেশি। চাহিদা এবং যোগানের মধ্যে সমন্বয়ের অভাবে মাঝে মধ্যেই অস্থির হয়ে ওঠে পেঁয়াজের বাজার।

গত এক সপ্তাহ ধরে বাড়ছে এই পণ্যের দাম। মূলত দেশি পেঁয়াজের দাম বেড়েছে সবচেয়ে বেশি। পাইকারি বাজারে কেজি ১৫ টাকা বাড়লেও খুচরা বাজারে বেড়েছে ২০ থেকে ২৫ টাকা।

সরকারি সংস্থা, টিসিবির হিসেব বলছে, দেশি পেঁয়াজের দাম সপ্তাহের ব্যবধানে বেড়েছে প্রায় ৪০ ভাগ। আর আমদানি করা পেঁয়াজের দাম বেড়েছে ৩০ ভাগ।

নতুন পেঁয়াজ বাজারে আসতে শুরু করেছে। বাজারে ঘাটতিও তেমন নেই। এই সময়ে কেন বাড়ছে দেশি জাতের দাম?

ব্যবসায়ীরা এমন প্রশ্নের জবাবে বলছেন, দেশি পেঁয়াজের মৌসুম শেষ হওয়ায় সংকট তৈরি হয়েছে পেঁয়াজের বাজারে। দাম বাড়ার এটাই কারণ।

ভারত এবং মিয়ানমার থেকে আসা পেঁয়াজের দাম বাড়তি। যদিও ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা এখন নেই বলে দাবি করছেন ব্যবসায়ীরা।

উল্লেখ্য, পূর্বে চেয়ে ৭ লাখ টন বেড়ে এখন দেশে পেঁয়াজ উৎপাদন হচ্ছে প্রায় ৩২ লাখ টন।

আশা করা হচ্ছে, কয়েক বছরের মধ্যেই পেঁয়াজে স্বয়ংসম্পূর্ণ হবে বাংলাদেশ।
প্রভাতনিউজ/এনজে