বাবাকে নিয়ে চঞ্চল চৌধুরীর আবেগঘন স্ট্যাটাস

অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। ছোটপর্দার থেকে বড়পর্দা; সবখানেই তার সরব উপস্থিতি। বিভিন্ন ধরনের চরিত্রে পরিচ্ছন্ন অভিনয় দিয়ে নিজেকে প্রমাণ করেছেন তিনি। গত ৯ মে ‘মা দিবস’-এ মায়ের সঙ্গে তোলা একটি শেয়ার করেছিলেন এই অভিনেতা। আজ (৩০ মে) বিকেলে বাবার সঙ্গে তোলা একটি ছবি শেয়ার করলেন চঞ্চল।

শিক্ষক বাবাকে নিয়ে খাঁটি আঞ্চলিক ভাষায় ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, ‘আমাদের বাবা। অবসর প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক। ছোটবেলা থেকে হাজার মানুষের মুখে শুনেছি। তুমি কিন্তু মাস্টার ছাওয়াল। ঠিক মতো পড়াশুনা করা লাগবি। ভালো মানুষ হওয়া লাগবি। সৎ মানুষ হওয়া লাগবি বাপের মতন। তা না হলি কিন্তু তুমার বাবার মুখ থাকপিনে।’

আমাদের বাবা…. প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবসর প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক। ছোটবেলা থেকে হাজার মানুষের মুখে শুনেছি….. ”তুমি…

Posted by Chanchal Chowdhury on Sunday, May 30, 2021

এই কথাগুলো স্বাভাবতই নাকি তার কাছে বাড়তি চাপ ছিলো। তিনি লিখেছেন, ‘শিক্ষকের সন্তানদের জন্য এটা ছিল বাড়তি চাপ। মোটামোটি বাবার মুখ রাখার চেষ্টা এখনও করে চলেছি। নতুন প্রজন্মের সবাই যদি অন্তত: বাবা-মায়ের মুখটা রাখার চেষ্টা করতো। দেশের মঙ্গল হতো।’

তার পোস্টের কমেন্ট বাক্সে মন্তব্য করেছেন অনেকেই। বাবা-ছেলেকে প্রশংসায় ভাসাচ্ছেন কেউ কেউ।

রিতা ঘোষ নামে একজন লিখেছেন, ‘চঞ্চল দা আমার বাবাও একজন আদর্শ শিক্ষক ছিলেন। বাবা যে আমাদের সমাজে কত প্রিয় এবং আদর্শ ব্যক্তি ছিলেন তা মারা যাওয়ার পর আমরা বুঝতে পেরেছি। বাবা মারা যাওয়ার পর কত হিন্দু-মুসলিম বাবার ছাত্র এসে বাবা কে প্রণাম করেছেন সেদিনের দৃশ্য দেখে আমরা সবাই অবাক। তাদের মধ্যে কেউ ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার শিক্ষক ব্যবসায়ী সব শ্রেণীর মানুষ ছিলেন। তাই আমার বিশ্বাস সমাজে এখনো অনেক ভালো মানুষ আছেন। যাদের মধ্যে কোন জাতিভেদ নেই। আমরা সবাই মানুষ এটাই আমাদের পরিচয়। শুধু একটা কথাই বলবো আপনার বাবাই আমার বাবা।’

সিফাত নীল নামে একজন লিখেছেন, ‘আপনার বাবা একজন অমায়িক মানুষ। আমি উনার সাথে কথা বলেছি। এমন আন্তরিক, নিরহংকারী ও মাটির মানুষ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। দোয়া রইল আপনাদের সবার প্রতি।’

নাজিবুল হক লিখেছেন, ‘শ্রদ্ধা ও সম্মানের সবটুকু আপনার বাবার জন্য। আজ জানলাম আপনার বাবা একজন শিক্ষক। মহান পেশা ও মানুষ গড়ার কারিগরের যোগ্য সন্তান আপনি। ভালো থাকুন।’

জুয়েল শিকদার লিখেছেন, ‘বিনম্র শ্রদ্ধা ভালোবাসা অবিরাম অন্তহীন অফুরান শুভেচ্ছা ও শুভকামনা রইলো। পৃথিবীর সকল জীবিত বা মৃত বাবা মায়ের প্রতি। ভালো থাকুন, নিরাপদ থাকুন এপারে ওপারে ও সবখানে।’

এর আগে ‘মা দিবস’-এ মায়ের সঙ্গে তোলা একটি স্থিরচিত্র প্রকাশ করেন চঞ্চল। আর তারপর সামাজিক পাতায় তার ধর্মপরিচয়ের প্রশ্ন তুলে নেটিজেনদের একাংশের কটাক্ষের শিকার হন তিনি। ওই পোস্টের কমেন্ট বক্সে কিছু ফেসবুক ব্যবহারকারী সাম্প্রদায়িক মন্তব্য করে। পরে চঞ্চল চৌধুরী সেসব মন্তব্য দেখে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। প্রতিবাদ স্বরূপ অনেকে নিজের প্রোফাইল পিকচার বদলে চঞ্চল চৌধুরী ও তার মায়ের ছবি। এছাড়া হ্যাশট্যাগে লেখেন ‘চঞ্চল চৌধুরী ইজ আওয়ার ব্রাদার’, ‘তোমার মা আমার মা’, ‘আমার মা, তোমার মা’, ‘স্টপ সাইবার বুলিং’, ‘হোক প্রতিবাদ’।