বোনারের শতকে বাঁচলো উইন্ডিজ

সম্ভাব্য চারটি ফলাফলের সম্ভাবনা নিয়ে শুরু হওয়া টেস্টের শেষ দিনটি শেষ হয়েছে ড্রয়ের মধ্যদিয়েই। আর এতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল নিশ্চয়ই সন্তুষ্ট, কারণ তাদের অনভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানরা দলকে এগিয়ে নিতে এবং চূড়ান্ত দিনের চ্যালেঞ্জ কিভাবে মোকাবেলা করতে হয় তা দেখিয়ে দিয়েছে।

এদিন মাত্র তৃতীয় টেস্টে খেলতে নেমে অনবদ্য শতক হাঁকিয়েছেন এনক্রুমাহ বোনার। যিনি প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ১২ বছর ধরে কঠোর পরিশ্রম করে এসেছেন এবং টেস্টে সেঞ্চুরি করার আশৈশব স্বপ্নকে পূরণ করেছেন। আর সেঞ্চুরিটা এসেছে এমন একটা সময় যখন একটা বড় রান তাড়ায় চতুর্থ ইনিংসে ব্যাট করতে নামতে হয় উইন্ডিজকে। যা তাকে এগিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে প্রচুর আত্মবিশ্বাস যুগিয়েছে। আর বোনারকে যোগ্য সঙ্গ দিয়ে অর্ধ শতক তুলে নেন কাইল মায়ার্স। 

এর আগে ১০২ রানে পিছিয়ে থেকে ব্যাট করতে নামা শ্রীলঙ্কা বিপর্যয়ে পড়ে দ্বিতীয় ইনিংসেও। মাত্র ৮ রানে প্রথম উইকেট হারানো দলটি ৪ উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকে স্কোরে ১৮৯ রান জমা করতেই। তবে এরপরই গল্পটা নতুন করে শুরু করেন অভিষিক্ত পাথুম নিসাঙ্কা। প্রথম টেস্ট খেলতে নেমেই জায়গা করে নেন ইতিহাসের পাতায়। 

পঞ্চম উইকেটে ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার (৫০) সঙ্গে ৭০ রানের জুটি গড়ার পর ষষ্ঠ উইকেটে নিরোসান ডিকওয়েলাকে নিয়ে গড়েন ১৭৯ রানের মহাকাব্যিক জুটি। এর মাঝে নিজের প্রথম শতকটিও তুলে নেন নিসাঙ্কা। ২৫২তম বলে কর্নওয়ালের শিকার হওয়ার আগে মাত্র ৬টি চারের মারে করেন ১০৩ রান। 

মূলত এই জুটির কল্যাণেই উইন্ডিজের বিপক্ষে বড় লিডের দেখা পায় শ্রীলঙ্কা। কেননা, নিসাঙ্কার আউটের পরই মাত্র ৪ রানের আক্ষেপ নিয়ে সাজঘরে ফেরেন সঙ্গী ডিকওয়েলা। তার ১৬৩ বলের ইনিংসে ছিল ৮টি চারের মার। এরপর আর মাত্র ১৬টি রান যোগ করতে পারে সফরকারীরা। যাতে ক্যারিবীয়দের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩৭৫। 

সময়ের বিচারে তা চেজ করা নিতান্ত অসম্ভব হওয়ায় ড্রয়ের পথেই হাঁটে উইন্ডিজ। কেননা, ১২০ ওভারে ওই রান তুলতে গেলে কিনা শেষে হারই দেখতে হয়! তাইতো উইকেট আগলে রান তুলতে সচেষ্ট হয় স্বাগতিকরা। ২০৪ রানে চতুর্থ উইকেট হারালেও পরে আর কোনও বিপদ হতে না দিয়ে পুরো ১০০ ওভার খেলে তবেই ড্র মেনে নেয় উভয়দল। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর-
শ্রীলঙ্কা প্রথম ইনিংস- ১৬৯/১০; (থিরিমান্নে ৭০, ডিকওয়েলা ৩২; হোল্ডার ৫/২৭, রোচ ৩/৪৭)।
উইন্ডিজ প্রথম ইনিংস- ২৭১/১০; কর্ণওয়াল ৬১, ডা সিলভা ৪৬; লাকমাল ৫/৪৭, ফার্নান্ডো ২/৫২)।
শ্রীলঙ্কা দ্বিতীয় ইনিংস- ৪৭৬/১০; নিসাঙ্কা ১০৩, ডিকওয়েলা ৯৬, রোচ ৩/৭৪, কর্ণওয়াল ৩/১৩৭)।
উইন্ডিজ দ্বিতীয় ইনিংস- ২৩৬/৪; বোনার ১১৩*, মায়ার্স ৫২, এম্বুলডেনিয়া ২/৬২, ফার্নান্ডো ২/৭৩)।
ফল- ম্যাচ ড্র
ম্যাচ সেরা- এনক্রুমাহ বোনার (উইন্ডিজ)।