ব্রাজিলের তিন বাহিনী প্রধানের পদত্যাগ

ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারোর ওপর ক্ষোভ থেকে দেশটির তিন বাহিনী অর্থাৎ সেনা, নৌ এবং বিমানবাহিনীর প্রধানরা পদত্যাগ করেছেন। কোনো পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে বরখাস্ত করায় তিন বাহিনীর প্রধানরা এমন পদক্ষেপ নিয়েছেন বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান।

ব্রাজিলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়, মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) বিকেলে তিন বাহিনীর প্রধানরা পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন। শিগগিরই তাদের দায়িত্বে অন্য কাউকে নিয়োগ দেওয়া হবে।

গত সোমবার মন্ত্রিসভায় বড় রদবদল করেছেন বোলসোনারো। নতুন মন্ত্রিসভার সঙ্গে মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) দেখা করতে যান সেনাপ্রধান জেনারেল এডসন লিয়াল পুজল, অ্যাডমিরাল ইকুয়েস বারবোসা এবং লেফটেন্যান্ট ব্রিগেডিয়ার অ্যান্তোনিয়ো কার্লোস বার্মুডেজ। সেই সাক্ষাতেই মন্ত্রীদের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন তিন বাহিনী প্রধানরা।

ব্রাজিলের স্থানীয় গণমাধ্যমের দাবি, দেশটির প্রতিরক্ষা প্রধানরা প্রেসিডেন্ট বোলসোনারো সামরিক বাহিনীর উপর অযৌক্তিক নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করার জন্য যে প্রচেষ্টা দেখছেন, তার প্রতিবাদে পদত্যাগ করেছেন। দেশটির ইতিহাসে এর আগে তিন বাহিনীর প্রধানরা একসঙ্গে পদত্যাগ করেননি। প্রেসিডেন্টের সিদ্ধান্তের সঙ্গে অমিল হওয়াতেই এই পদক্ষেপ নিয়েছেন তারা।

এদিকে করোনা মহামারির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে না পারায় জনপ্রিয়তা হারিয়েছেন দুই বছর আগে দায়িত্ব গ্রহণ করা বোলসোনারো। তার বিরুদ্ধে দেশজুড়ে ক্ষোভ এবং হতাশা তৈরি হয়েছে।

করোনা সংক্রমণের প্রথম থেকেই ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টের দাবি করে আসছেন যে, করোনা মোকাবেলায় লকডাউন জারি করা হলে অর্থনীতিতে ধস নামবে। তিনি মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা এমনকি কোয়ারেন্টাইনের পক্ষেও ছিলেন না।

করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুতে শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এর পরেই ব্রাজিলের অবস্থান। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ২৬ লাখ ৬৪ হাজার ৫৮। এর মধ্যে প্রায় ৩ লাখ ১৪ হাজার মানুষ মারা গেছে।