মেয়ের হত্যার ৪ দিন পর বাবাকে গলাকেটে হত্যাচেষ্টা

কুমিল্লার চান্দিনায় কিশোরীকে মেয়ে গলাকেটে হত্যার চারদিন পর বাবা সোলেমান ব্যাপারীকে হত্যার চেষ্টা করেছে দুর্বৃত্তরা।

মঙ্গলবার (৫ অক্টোবর) ভোরে চান্দিনা উপজেলার গল্লাই ইউনিয়নের বসন্তপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত সোলেমান ব্যাপারী কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তিনি তার মেয়ে সালমা আক্তার হত্যা মামলার বাদী।

১ অক্টোবর রাতে সোলেমানের মেয়ে সালমাকে গলাকেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা মরদেহ পুকুরে ফেলে দেয়। এ ঘটনায় ১০ জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন সোলেমান।

সোলেমান ব্যাপারীর বড় মেয়ে এলমা আক্তার জানান, সোমবার রাত ৮টার দিকে তার বাবা দোকানে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হন। এরপর আর বাবাকে খুঁজে পাচ্ছিলেন না। মোবাইল ফোনও বন্ধ ছিল। মঙ্গলবার ভোরে গ্রামের এক ব্যক্তি বাগানের পাশে বাবাকে গলাকটা অবস্থায় দেখতে পেয়ে আমাদের খবর দেন।

এ ব্যাপারে চান্দিনা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আরিফুর রহমান জানান, আহত ব্যক্তিকে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর আগে ওই ব্যক্তির মেয়েকে হত্যার ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামিরা পলাতক থাকায় গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।