মে মাসের বিশ্বসেরা হওয়ার তালিকায় মুশফিক

বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা (আইসিসি) গত জানুয়ারি মাস থেকে চালু করেছে ‘আইসিসি প্লেয়ার অব দ্যা মান্থ’ খেতাব। প্রতিমাসের সেরা পারফর্মারদের নির্বাচিত করে আসছে সংস্থাটি। মে মাসের পারফরম্যান্স অনুযায়ী এই খেতাবের জন্য মনোনয়ন পেয়েছেন বাংলাদেশের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম।

ব্যাট হাতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দাপট দেখিয়েছিলেন তিনি। পেয়েছেন এক সেঞ্চুরির সঙ্গে একটি হাফ সেঞ্চুরিও। এই সাফল্যের পথ ধরে অনন্য অর্জনের হাতছানি মুশফিকুর রহিমের সামনে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ব্যাট হাতে দাপটের পর ‘আইসিসি প্লেয়ার অব দা মান্থ’-এর সংক্ষিপ্ত তালিকায় জায়গা পেলেন বাংলাদেশের অভিজ্ঞ এ ব্যাটসম্যান।

মে মাসের সেরা হওয়ার লড়াইয়ে তার সঙ্গে আছেন পাকিস্তানের হাসান আলি ও বাংলাদেশের বিপক্ষে দুর্দান্ত খেলা শ্রীলঙ্কার প্রভিন জয়াবিক্রমা। লঙ্কান স্পিনার প্রবীণ বাংলাদেশের বিপক্ষে হোম টেস্ট সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচের পারফরম্যান্স বিবেচনায় সুযোগ পেয়েছেন। ২৯ মে শুরু হওয়া পাল্লেকেলে টেস্টে ১১ উইকেট ছিল তার দখলে, ১৬.১৮ গড়ে। পাকিস্তানি পেসার হাসানও মনোনয়ন পেয়েছেন টেস্টের পারফরম্যান্স বিবেচনায়। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুই টেস্টে ৮.৯২ গড়ে তিনি শিকার করেছিলেন ১৪ উইকেট। মুশফিক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডেতে তিন ম্যাচে ৭৯ গড়ে ২৩৭ রান করে পেয়েছেন এই মনোনয়ন।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দেশের মাঠে প্রথম ওয়ানডেতে ৮৪ রান করেন মুশফিক। দ্বিতীয়টিতে ১২৫ রান। শেষ ম্যাচে ২৮ রান। সব মিলিয়ে ২৩৭ রান নিয়ে সিরিজ সেরার পুরস্কারও পান এই তারকা ক্রিকেটার।

চলতি বছর থেকেই আইসিসি মাস সেরা ক্রিকেটারের স্বীকৃতি দেওয়া শুরু করেছে। আইসিসির ভোটিং একাডেমি ও ক্রিকেট সমর্থকদের যৌথ ভোটে নির্বাচন করা হয় মাসের সেরা। ভোটিং একাডেমিতে থাকেন জ্যেষ্ঠ ক্রীড়া সাংবাদিক, সাবেক ক্রিকেটার ও ধারাভাষ্যকাররা। ই-মেইলে ভোট দেন তারা। আর নিবন্ধিত সমর্থকদের ভোট দেন আইসিসির ওয়েবসাইটে।

তিন ক্রিকেটারের মধ্যে অবশ্য খেতাব জিতবেন যেকোনো একজন। এবারই প্রথম কোনো বাংলাদেশি ক্রিকেটার আইসিসি প্লেয়ার অব দ্যা মান্থ খেতাবের জন্য মনোনয়ন পেলেন।

প্রমীলা ক্রিকেটেও যথারীতি তিনজন ক্রিকেটার পেয়েছেন মাস সেরা খেলোয়াড়ের মনোনয়ন। তারা হলেন- স্কটল্যান্ডের ক্যাথরিন ব্রাইস এবং আয়ারল্যান্ডের গ্যাবি লুইস ও লিহ পল।