যুক্তরাষ্ট্রে করোনার টিকা নেওয়া বাধ্যতামূলক করা হবে না : বাইডেন

যুক্তরাষ্ট্রে নভেল করোনাভাইরাসের টিকা প্রয়োগ শুরু হলে তা নিতে দেশবাসীকে জোর করা হবে না বলে জানিয়েছেন দেশটির নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ডেলাওয়ার অঙ্গরাজ্যের উইলমিংটনে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান তিনি। সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে এমনটি জানানো হয়েছে।

টিকা প্রয়োগ নিয়ে এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে বাইডেন বলেন, ‘আমি মনে করি না যে এটা বাধ্যতামূলক হওয়া উচিত। আমি এটা বাধ্যতামূলক করতে চাইব না, তবে আমার ক্ষমতার আওতার মধ্যে যতটা পারা যায়, তার সবটা করব, ঠিক যেমন আমি মনে করি না যে মাস্ক পরা দেশব্যাপী বাধ্যতামূলক করতে হবে।’

জো বাইডেন বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে জনগণকে সঠিক কাজটি করতে উৎসাহ দিতে আমার ক্ষমতার আওতার মধ্যে সবকিছু করব। আর, তারা (জনগণ) এটা করলে দেখা যাবে যে এর গুরুত্ব রয়েছে। এজন্য আমি বলেছি, সবাইকে ১০০ দিনের জন্য আমি মাস্ক পরতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হতে বলব। এটা শাস্তি দেওয়ার জন্য নয়। আর এটি কোনো রাজনৈতিক ইস্যু নয়। যখন টিকা চলে আসবে, এর বিতরণ চলবে, সেই সময় ১০০ দিন মাস্ক পরলে সবাই দেখবে মৃত্যুর সংখ্যা  কমে গেছে।’

বাইডেন আরো বলেন, ‘লাখ লাখ মানুষকে অসুস্থ না হতে দেখলে, আমার ধারণা সবাই বলবে, ঠিক আছে অন্যদের সুরক্ষার মাধ্যমে দেশপ্রেমের জায়গা থেকে দায়িত্ব হিসেবে এটা করা উচিত।’

নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সামনে অর্থনীতি পুনরুদ্ধার ও বর্ণবাদ মোকাবিলার সঙ্গে সঙ্গে মহামারি করোনাভাইরাস মোকাবিলা মূল চ্যালেঞ্জ। মার্কিনিদের জন্য ইতিবাচক ব্যাপার হচ্ছে, বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মতো করোনাকে হালকাভাবে নিচ্ছেন না বাইডেন।

বাংলাদেশ সময় আজ শনিবার সকাল পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে এক কোটি ৪৭ লাখ ৭২ হাজার ৫৩৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে দুই লাখ ৮৫ হাজার ৫৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিশ্বখ্যাত পরিসংখ্যান সাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার এসব তথ্য জানিয়েছে।