যুক্তরাষ্ট্রে সরকারি অর্থায়নে পড়তে যাচ্ছেন ৮ শিক্ষার্থী

বাংলাদেশের সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক-পড়ুয়া আট শিক্ষার্থী যুক্তরাষ্ট্র সরকারের অর্থায়নে সে দেশের কমিউনিটি কলেজগুলোতে এক বছরের জন্য পড়তে যাবে। এই কোর্সে অংশ নিয়ে বাংলাদেশী শিক্ষার্থীরা তাদের কর্মজীবনের ক্ষেত্রগুলোর সন্ধান করবে এবং নিজেদের নেতৃত্ব দেওয়ার সক্ষমতা ও ইংরেজি ভাষার দক্ষতা জোরদার করবে।

বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার স্টেট ডিপার্টমেন্টের অর্থায়নে পরিচালিত কমিউনিটি কলেজ ইনিশিয়েটিভ (সিসিআই) কর্মসূচির জন্য নির্বাচিত হওয়া যুক্তরাষ্ট্রগামী আট বাংলাদেশী স্নাতক-পড়ুয়া শিক্ষার্থীকে গত বৃহস্পতিবার এক যাত্রা-পূর্ব ভার্চুয়াল পরিচিতি অনুষ্ঠানে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

শিক্ষার্থীরা তাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা, সম্ভাবনাময় নেতৃত্বদানের দক্ষতা এবং সামাজিক কর্মকান্ডের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন। তারা ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া, নিউইয়র্ক, ফ্লোরিডা, আইওয়া, পেনসিলভানিয়া ও উইসকনসিনে অবস্থিত আমেরিকান কমিউনিটি কলেজগুলোতে স্নাতক স্তরের কোর্সে পূর্ণকালীন শিক্ষার্থী হিসেবে ভর্তি হবেন। তারা সেখানে কলেজ ক্যাম্পাসে আমেরিকান ও আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের সাথে বাস করবেন এবং আমেরিকান সংস্কৃতি, ইতিহাস ও সমাজ সম্পর্কে জানার পাশাপাশি আমেরিকান শিক্ষার্থীদের বাংলাদেশ সম্পর্কে জানতে সহায়তা করবেন। এই সময়ে তারা তাদের নেতৃত্বের সক্ষমতা ও ইংরেজি ভাষার দক্ষতা বাড়াবেন এবং স্ব স্ব অধ্যয়নের বিষয়গুলোতে দুই মাসের এক ইন্টার্নশিপে অংশ নেবেন। ২০১৩ সাল থেকে এ পর্যন্ত মোট ৫৭ জন বাংলাদেশী শিক্ষার্থী সিসিআই কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন।

রাষ্ট্রদূত মিলার শিক্ষার্থীদের তাদের সাফল্য, শেখার প্রতি আগ্রহ ও প্রতিশ্রুতি এবং অনুসন্ধানী মনোভাবের প্রশংসা করে তাদেরকে ব্যক্তিগত, শিক্ষাগত ও পেশাগত উন্নয়নের সুযোগগুলোকে অব্যাহতভাবে কাজে লাগানোর পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করার জন্য উৎসাহিত করেন।

রাষ্ট্রদূত বলেন, “সিসিআই-এর মতো বিনিময় কার্যক্রমগুলো আপনাদের জন্য এবং আপনাদের মতো আরো অংশগ্রহণকারীদের নিজেদের চারপাশের জগতকে আবিষ্কার করার অপূর্ব সুযোগ তৈরি করে দিচ্ছে — বিভিন্ন সংস্কৃতি ও সমাজ সম্পর্কে জানতে পারছেন; ভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গির মানুষের সাথে মিশতে পারছেন; নতুন নতুন শখ ও খাবার খুঁজে পাচ্ছেন, আর এসবের মধ্য দিয়ে অংশগ্রহণকারীদের মনে নতুন স্বপ্ন তৈরি হচ্ছে এবং একটা বৈশ্বিক দৃষ্টিভঙ্গি গড়ে উঠছে। এছাড়াও আপনারা আমেরিকানদের মনে বাংলাদেশ সম্পর্কে জানার আগ্রহ তৈরি করা এবং তাদেরকে বাংলাদেশ সম্পর্কে আরো ভালোভাবে জানানোর অনন্য সুযোগ পাবেন।”

কমিউনিটি কলেজ ইনিশিয়েটিভ (সিসিআই) কর্মসূচি ঢাকাস্থ আমেরিকান দূতাবাসের ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত যুব বিনিময় কার্যক্রমগুলোর মধ্যে অন্যতম। বিভিন্ন ধরনের যুব বিনিময় কার্যক্রমের মাধ্যমে ঢাকাস্থ আমেরিকান দূতাবাস যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের জনগণের সাথে জনগণের বন্ধন জোরদারকরণ ও সম্প্রসারণের পাশাপাশি দুই দেশের মধ্যে শিক্ষা যোগাযোগ বৃদ্ধি এবং বাংলাদেশী তরুণদের জন্য উদ্ভাবনী বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণের সুযোগ তৈরিতে সহায়তা করে থাকে।

এই কর্মসূচি সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে দেখুন:

https://exchanges.state.gov/non-us/program/community-college-initiative-program

কমিউনিটি কলেজ ইনিশিয়েটিভ (সিসিআই) কর্মসূচি যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক ব্যুরো (ইসিএ)-এর অর্থায়নে পরিচালিত হয়। সিসিআই কর্মসূচি বিশ্বের ১১টি দেশের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর উদীয়মান তরুণ নেতৃত্বকে আমেরিকান কমিউনিটি কলেজে এক বছর মেয়াদী ডিগ্রিবিহীন কোর্সে অংশগ্রহণের সুযোগ করে দেয়। এই কর্মসূচির উদ্দেশ্য হলো অংশগ্রহণকারীদের কারিগরি দক্ষতা, নেতৃত্বের সামর্থ্য ও ইংরেজি ভাষার দক্ষতা তৈরিতে সহায়তা করা। এছাড়া কর্মসূচিতে অংশগ্রহণকারীরা তাদের পেশাগত ইন্টার্নশিপ, স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করা এবং আমেরিকান কমিউনিটিতে নিজেকে যুক্ত করার সুযোগ পান। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।