রাজনীতির নামে কাউকে ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড করতে দেওয়া হবে না : আইজিপি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার হামলার ঘটনা তদন্তে যাদের নাম আসবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ব্যাপারে প্রত্যেকটি ঘটনার বিচার হওয়া উচিত। আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে সার্কিট হাউসে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ।

আইজিপি বলেন, পুলিশের কাছে ভিডিও ফুটেজ ও স্টিল ছবি আছে। ভিডিও ফুটেজ ও স্টিল ছবি দেখে অপরাধীদের শনাক্ত করা হচ্ছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসীর ভয় পাওয়ার কিছু নেই। দেশের সব মানুষ তাদের সঙ্গে আছে। যারাই এ ধরনের ঘটনার সঙ্গে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যে ভয়াবহ তাণ্ডব ও নৃশংসতা চালানো হয়েছে, এর নিন্দা জানানোর ভাষাও আমাদের জানা নেই।

বেনজীর আহমেদ বলেন, মাদ্রাসার এতিম শিশু ও দরিদ্র পরিবারের সন্তানদের দিয়ে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করা হয়। রাজনীতি করার অধিকার সবার  আছে। কিন্তু রাজনীতির নামে ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড কাউকে করতে দেওয়া হবে না।

এ সময় পুলিশ প্রধানের সঙ্গে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন, পুলিশের বিশেষ শাখার প্রধান মনিরুল ইসলাম, চট্টগ্রাম রেঞ্জের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মোঃ আনোয়ার হোসেন, জেলা প্রশাসক হায়াদ উদ দৌলা খান ও পুলিশ সুপার (এসপি) মোঃ আনিসুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকালে আইজিপি ক্ষতিগ্রস্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেল স্টেশন, পৌরসভা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাব, জেলা শিল্পকলা একাডেমি, ভূমি অফিস, সুরসম্রাট আলাউদ্দিন খাঁ সঙ্গীতাঙ্গনসহ বেশ কিছু ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করেন। পরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবে এসে বিক্ষুব্ধদের হামলায় আহত প্রেসক্লাব সভাপতি রিয়াজউদ্দিন জামিসহ অন্য আহত সাংবাদিকদের খোঁজ খবর নেন।