রাশিয়া থেকে মিসাইল কিনছে বাংলাদেশ

বাংলাদেশ বিমান বাহিনী রাশিয়ার তৈরি কেএইচ-৩১এ এন্টি-শিপ মিসাইল (ক্ষেপণাস্ত্র) কেনার অর্ডার দিয়েছে বলে জানা গেছে। মিগ-২৯বিএম মাল্টিরোল ফাইটারে এসব মিসাইল সংযোজন করা হবে। সম্প্রতি বেলারুশ থেকে ফাইটারগুলো আপগ্রেড করে আনা হয়েছে।

আজ শনিবার (২৩ জানুয়ারি) সাউথ এশিয়ান মনিটর এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদেন প্রকাশ করেছে।

এতে বলা হয়েছে, বিমান থেকে নিক্ষেপযোগ্য কেএইচ-৩১এ মিসাইলগুলো এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে, যাতে সারফেসের যেকোনো লক্ষ্যবস্তুতে যথাযথভাবে আঘাত হানতে পারে। এই মিসাইল দিয়ে সাড়ে ৪ হাজার টন ডিসপ্লেসমেন্ট ক্ষমতাসম্পন্ন যুদ্ধজাহাজ ধ্বংস করা যাবে।

রাশিয়ার অস্ত্র কেনাবেচার দায়িত্বে থাকা সরকারি প্রতিষ্ঠান রজোবরোনেক্সপোর্টের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অ্যাকটিভ রাডার সিকার ধরনের মিসাইল হলো কেএইচ-৩১এ। এর পূর্বসূরি হচ্ছে কেএইচ-৩১পি। এর উন্নত সংস্করণটি লেয়ার্ড এয়ার ডিফেন্স ভেদ করতে সক্ষম।

bangladesh air force 1বাংলাদেশ বিমানবাহিনী

খবরে বলা হয়েছে, এই মিসাইলগুলোতে মিড-কোর্স রাডার গাইডেন্স এবং টার্মিনাল হোমিং ব্যবস্থা রয়েছে। এতে রয়েছে এআরজিএসএন-৩১ জ্যাম-রেজিসট্যান্ট অ্যাকটিভ রাডার গাইডেন্ট সিস্টেম। এর ফলে মিসাইলটি এক গ্রুপ একই ধরনের জাহাজের মধ্য থেকে নির্দিষ্ট টার্গেট খুঁজে বের করতে সক্ষম। এতে রয়েছে ৯৪ কেজি ওজনের আর্মার-পিয়ার্সিং ওয়্যারহেড। টার্গেট শনাক্ত করাই হলো মিগ-২৯এস ঝুক-এমই ফায়ার কন্ট্রোল রাডারের কাজ। এসব মিসাইল থাকে সিল করা কনটেইনারের ভেতর।

জানা গেছে, কেএইচ-৩১এ মিসাইলের সর্বোচ্চ ফায়ারিং রেঞ্জ ৭০ কিলোমিটার। এর সর্বোচ্চ গতি ১ এম/সে। মিসাইলটির অপারেশনাল উচ্চতা ১৫ হাজার মিটার। উৎক্ষেপণকালে প্রতিটি মিসাইলের ওজন হয় ৬১০ কেজি। এটির টার্গেটে আঘাত হানার সম্ভাবনা ৮০ শতাংশ।

bangladesh to buy anti ship missile innerরাশিয়ার তৈরি কেএইচ-৩১এ এন্টি-শিপ মিসাইল কেনার অর্ডার দিয়েছে বাংলাদেশ বিমান বাহিনী

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এয়ারপ্লাটফর্মগুলোতে অত্যাধুনিক গোলাবারুদ যোগ করছে বাংলাদেশ বিমানবাহিনী। এর আগে তুরস্কের অরিজিন তিবের লেজার গাইডেড মিউনিশন এবং চীনের এলএস-৬/২৫০ গাইডেড মিউনিশন কেনা হয়েছে এফ-৭বিজি/বিজি১ বহরের জন্য। বাংলাদেশ বিমানবাহিনী রাশিয়া ও পূর্ব ইউরোপের অন্যান্য দেশ থেকে শিগগিরই আরো আধুনিক বিভিআর এয়ার-টু-এয়ার মিসাইল কিনতে যাচ্ছে বলেও জানিয়েছে সাউথ এশিয়ান মনিটর।