রোজিনার কোটি টাকা বাজেটের ছবির শুটিং শুরু মার্চে

‘আনারকলি’, ‘দোলনা’ ও ‘সাত ভাই চম্পা’ সিনেমার নায়িকা রোজিনাকে মনে আছে? মনে না রাখার কোনো কারণ নেই। ঢাকার সিনেমা ইন্ডাষ্ট্রির সোনালী দিনের নায়িকা তিনি। অভিনয় ও গ্ল্যামার দিয়ে তিনি প্রথম শ্রেণির নায়িকা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেন নিজেকে।

ক্যামেরার সামনে দ্যোতি ছড়ানো এ নায়িকা এবার অভিজ্ঞতার ক্যারিশমা দেখাবেন ক্যামেরার পেছনে। মানে সিনেমা নির্মাণ করবেন তিনি। নির্মাণের পাশাপাশি অভিনয়ও করবেন সেই সিনেমায়। ছবির নাম ‘ফিরে দেখা’

বছরের একেবারে শেষের দিন ৩১ ডিসেম্বর লন্ডন থেকে দেশে ফেরেন তিনি। দেশে ফিরেই ‘ফিরে দেখা’র প্রি প্রডাকশন নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। মঙ্গলবার বিকেলে রোজিনা বললেন, ”মার্চের ১ তারিখ থেকে ‘ফিরে দেখা’র শুটিং করবো। এখন ছবিটির পোস্ট প্রডাকশনের কাজ চলছে। গান রেকর্ডিং করছি। এর মধ্যে ছবির আর্টিস্টও চূড়ান্ত করার প্রক্রিয়া চলছে।”

২০১৯-২০ অর্থবছরে চলচ্চিত্রের জন্য অনুদান পেয়েছেন রোজিনা। গল্পটি তার নিজের। রোজিনা জানালেন, ‘ফিরে দেখা’র গল্পটি মুক্তিযুদ্ধকালীন সত্যিকারের একটি ঘটনা অবলম্বনে তৈরি। ১৯৭১ সালে তার নানাবাড়ি গোয়ালন্দের একটি পরিবারের ঘটনার ওপর ভিত্তি করে ছবিটি নির্মিত হবে।

রোজিনা

এর আগে রোজিনা জানান, ছবিতে তার বিপরীতে ইলিয়াস কাঞ্চনকে নেওয়ার পরিকল্পনার কথা। তবে এই প্রজন্মের দুই ছেলে-মেয়েকেও নেওয়া হচ্ছে বলে জানালেন তিনি। নতুন এই দু’জন কি চূড়ান্ত করা হয়েছে? প্রশ্ন রাখলে রোজিনা বলেন, সেটি এখনই জানাতে পারছিনা। শুটিংয়ের যাওয়ার আগে সবাইকে আনুষ্ঠানিক সবকিছু জানাতে চাই। 

ছবিটির জন্য রোজিনা সরকারি অনুদান পেয়েছেন ৫০ লাখ টাকা। রোজিনা বলেন, ছবির জন্য যে গল্প বেছে নিয়েছি তা সঠিকভাবে পর্দায় তুলে আনতে কয়েক কোটি টাকার প্রয়োজন। তবে ৫০ লাখ টাকা অনুদান দেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান তিনি। রোজিনা জানান, ‘ফিরে দেখা’ নির্মাণে তার এক কোটি টাকার বেশি খরচ হবে। অনুদানের বাইরে বাকী ৫০ লাখ টাকা নিজেই লগ্নী করবেন বলে জানান তিনি। 

গত বছরের ২৮ অক্টোবর যুক্তরাজ্যে উড়াল দিয়েছিলেন রোজিনা। করোনার এই ভয়াবহতার মধ্যে সেখানে খুব ভালো সময় কাটেনি বলে জানান তিনি।