সমঝোতায় ফিরতে হলে সব নিষেধাজ্ঞা একবারেই তুলে নিতে হবে: ইরান

ইরানের শীষ পর্যায়ের পরমাণু আলোচক এবং দেশটির উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইয়্যেদ আব্বাস আরাকচি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র যদি সত্যিই পরমাণু সমঝোতায় ফিরতে চায় তাহলে তেহরানের ওপর থেকে সব নিষেধাজ্ঞা একবারেই তুলে নিতে হবে।

অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় অনুষ্ঠিত পরমাণু সমঝোতা বিষয়ক যৌথ কমিশনের বৈঠকের অবকাশে ইরানের স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেল প্রেস টিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি একথা বলেছেন।

তিনি প্রেস টিভিকে নিশ্চিত করেন, এ বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রের কোনো প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন না। বৈঠকে শুধু ইরানের পরমাণু সমঝোতা ও নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের বিষয় নিয়ে আলোচনা হচ্ছে যাতে অংশ নিয়েছে ইরান, রাশিয়া, চীন, ব্রিটেন, ফ্রান্স ও জার্মানি।

আরাকচি বলেন, ভিয়েনা বৈঠক শেষে পরমাণু সমঝোতায় টিকে থাকা সদস্য দেশগুলো যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কথা বলবে। এটি সম্পূর্ণ তাদের বিষয়। আমরা তাতে জড়িত থাকব না। আমরা শুধু পাঁচ জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে কথা বলব।

আরাকচি আরও বলেন, পরমাণু সমঝোতা বাস্তবায়নের বিষয়টিকে ইরান খুবই গুরুত্ব দিচ্ছে কিন্তু গুরুত্ব দিচ্ছে না আমেরিকা। সে কারণে তারা এ সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গেছে।

ইরান এখন একবারেই নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের যে কথা বলছে তা খুবই যৌক্তিক এই কারণে যে, সমঝোতা অনুযায়ী নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের কথা ছিল; তাদের এখন তাই করতে হবে। যুক্তরাষ্ট্র যেহেতু এই সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গেছে সেহেতু তাদেরকেই উদ্যোগী হয়ে সমঝোতায় ফিরতে হবে এবং তার আগে অবশ্যই ইরানবিরোধী সব নিষেধাজ্ঞা একধাপে প্রত্যাহার করতে হবে।