সম্পদের মিথ্যা তথ্য দেয়ায় এসআইয়ের ৬ বছরের কারাদণ্ড

সম্পদের হিসাব বিবরণীতে মিথ্যা তথ্য দেওয়ায় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলায় সিরাজগঞ্জ সদর থানার চাকরিচ্যুত এসআই আব্দুল জলিলের ৬ বছরের কারাদণ্ডের রায় দিয়েছে আদালত। আজ বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার ৫ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক ইকবাল হোসেন এ রায় দেন।

আদালতের পেশকার মতিউর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, রায় ঘোষণার পর সাজা পরোয়ানা দিয়ে আব্দুল জলিলকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন বিচারক। দুর্নীতি দমন কমিশন আইনের ২৬(২) ধারায় ৩ বছর এবং ২৭(১) ধারায় ৩ বছরের কারাদণ্ড দেয় আদালত। তবে ২ ধারার সাজা একসঙ্গে চলবে বলে বিচারক রায়ে উল্লেখ করেন।

দুদকের নোটিশের জবাবে আব্দুল জলিল ২৩ লাখ ৭৩ হাজার ২৩২ টাকার সম্পদের হিসাব দাখিল করেন। তবে দুদক তদন্তে তার অর্জিত সম্পদ পায় ২৭ লাখ ৭০ হাজার ৮৩২ টাকার। এ ঘটনায় ২০১৭ সালের ৫ নভেম্বর রমনা থানায় দুদকের সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন। ২০১৮ সালের ২৮ নভেম্বর জলিলের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয় দুদক। ২০২০ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে আদালত। মামলায় ৮ জন সাক্ষীর মধ্যে বিভিন্ন সময় ৪ জন আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন। অন্যদের হদিস নেই।