সরকারের সঙ্গে সমঝোতার চেষ্টায় হেফাজত

হেফাজত

হেফাজতে ইসলামের কয়েকজন নেতা গ্রেপ্তার হওয়ার পর সরকারের সঙ্গে সমঝোতার চেষ্টা করছে দলটি। ইতোমেধ্যে হেফাজতের কয়েকজন নেতা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখাও করেছেন। সেসময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে কওমি মাদ্রাসা খুলে দেয়া এবং ধরপাকড় বন্ধ করার জন্য অনুরোধ জানান হেফাজত নেতারা।

ধরপাকড়ের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘ঢালাওভাবে ধরপাকড় হচ্ছে না, বরং সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতেই এই ধরপাকড় করে আইনের আওতায় আনা হচ্ছে এবং আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে।’

কওমি মাদ্রাসা খুলে দেয়ার বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘বিষয়টি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এখতিয়ার।’

জানা গেছে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে হেফাজতের নেতারা মূলত নিজেদের একটি অরাজনৈতিক সংগঠন হিসাবে আশ্বস্ত করার চেষ্টা করেছেন।

সংগঠনটির একজন কেন্দ্রীয় নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের সময় হেফাজতের কোনো কর্মসূচি ছিল না- সেটা তারা বোঝাতে চেয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে।

আরও পড়ুন…সরকার দেশকে নরকপুরীতে পরিণত করেছে : মির্জা ফখরুল

হেফাজতের ওই নেতা আরও জানিয়েছেন, তারা মনে করছেন, সরকার তাদেরকে প্রতিপক্ষ বা রাজনৈতিক শক্তি হিসাবে দেখছে। সেজন্য তারা সরকারকে বোঝাতে চাইছেন যে, হেফাজতে ইসলাম সরকারের কোনো প্রতিপক্ষ নয়।

তিনি বলেন, সরকার যেন কঠোর অবস্থান থেকে সরে এসে হেফাজত নেতাদের গ্রেপ্তার অভিযান বন্ধ করে এবং গ্রেপ্তারকৃতরা যাতে আইনগত সব সহায়তা নিতে পারে- সে ব্যাপারে তারা সরকারের সাথে সমঝোতার চেষ্টা করছেন।