সিয়াম আহমেদ: যার হাতেই আগামীর ইন্ডাস্ট্রি

মডেলিং দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করলেও নাটকেই পেয়েছেন পরিচিতি। ‘ভালোবাসা ১০১’ নাটক দিয়েই শুরু, অভিনয়গুণে অল্প সময়েই দর্শকমহলে হয়ে উঠেন আলোচিত। অভিনয়ে ব্যস্ততার তুঙ্গে থাকা অবস্থাতেই উচ্চ শিক্ষার জন্য পাড়ি জমান সুদূর লন্ডনে। আইন বিষয়ক ‘বার এট ল’ সম্পন্ন করে দেশে ফিরে আবারও ব্যস্ত হয়ে পড়েন নাটকে। সেইসাথে বিজ্ঞাপনে হয়ে উঠেন পরিচিত মুখ। বলছিলাম এই সময়ের ব্যস্ততম ও জনপ্রিয় চিত্রনায়ক সিয়াম আহমেদের কথা।

আয়নাবাজির অরিজিনাল সিরিজের ‘কে কোথায় কিভাবে’ নাটকে অভিনয় করে প্রশংসিত হন। এরপর ‘ঝড়ের পড়ে’, ‘জ্যাকশন বিল্লাল’, ‘চিরকুটের শব্দ’, ‘মেঘ এনেছি ভেজা’, ‘ছেলেটি অবন্তিকে ভালোবেসেছিলো’, ‘তোমার আমার প্রেম’সহ বেশ কয়েকটি দর্শকনন্দিত নাটক দিয়ে হয়ে যান বছরের সেরা টিভি অভিনেতা।

২০১৬ সালে ‘বখাটে’ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করে তুমুল প্রশংসিত হন। এখান থেকেই তার ক্যারিয়ারে মোড় ঘুরতে থাকে। ২০১৭ সালে ডাক পান বড় পর্দায় আর অভিষেক সিনেমা ‘পোড়ামন ২’ দিয়েই রীতিমত বাজিমাত করে বসেন এই নায়ক। প্রয়াত সালমান শাহের পর এ নায়কই মনে হয় প্রথম সিনেমায় সাফল্য পেয়ে নিজেকে রাঙিয়ে চলেছেন আপন মনে। সে বছরের সবচেয়ে আলোচিত এবং ব্যবসাসফল সিনেমার লিস্টে জায়গা করে নেয় তার সিনেমা। তারপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি এই নায়ককে।

একই বছরে মুক্তি পাওয়া দ্বিতীয় সিনেমা ‘দহন’ ও পরের বছর ‘ফাগুন হাওয়ায়’ দিয়ে নিজের অবস্হান পোক্ত করেন। সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে অনেকের ভরসার পাত্র হয়ে উঠেন অল্প সময়েই। ইন্ডাস্ট্রির শীর্ষ নায়ক শাকিব খানের পর এখন পরিচালক, প্রযোজকরা তার উপর ভরসা করতে পারেন। মুক্তি পাওয়া চার সিনেমার মাধ্যমেই দর্শক এবং নির্মাতাদের কাছে আস্থার জায়গা তৈরি করে নেন এই নায়ক।

এই মুহূর্তে দেশীয় সিনেমার সবচেয়ে ব্যস্ততম অভিনেতা বলা যায় তাকে। এখন তার হাতে রয়েছে প্রায় ৯টির মত সিনেমা। তার সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা ‘বিশ্বসুন্দরী’ মন্দার এই সময়ে টানা ১৫ সপ্তাহেরও বেশি হলে চলেছে, যেটা সবার কাছে বেশ আশাজাগানিয়া। মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে তার ‘শান’, ‘অপারেশন সুন্দরবন’ ও ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ সিনেমাগুলো। এছাড়াও হাতে রয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু’, ‘দামাল’, ‘স্বপ্নবাজি’, ‘ইত্তেফাক’, ‘মৃধা বনাম মৃধা’ ও ‘বায়োপিক’।

আজ এ নায়কের জন্মদিন। প্রথম প্রহর থেকেই সহকর্মী, বন্ধু-বান্ধব ও ভক্ত অনুরাগীদের শুভেচ্ছা ও ভালোবাসায় সিক্ত হচ্ছেন। দেখতে দেখতে জীবনের ৩০তম আর চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারের ৪র্থ বসন্তে পা রাখলেন সিয়াম।

পিরোজপুরে জন্ম হলেও সিয়ামের বেড়ে উঠা ঢাকাতেই। ছোট বেলা থেকেই খুব মেধাবী ছাত্র হিসেবে নিজের যোগ্যতার প্রমাণ দিয়ে এসেছেন বাবা মায়ের একমাত্র সন্তান সিয়াম আহমেদ। ঢাকার নটরডেম কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক শেষে তিনি বাবা মায়ের ইচ্ছেতেই ভর্তি হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদে। পরে সেটা ছেড়ে তিনি লন্ডনে আইন বিষয়ে পড়াশোনা শেষ করেন। সেখানে ‘বার এট ল’ সম্পন্ন করে দেশে ফিরে সিনেমায় ব্যস্ত হয়ে পড়েন।

কাজের সম্মাননাস্বরূপ বেশকিছু পুরস্কারও নিজের ঝুলিতে ভরে নেন এই অভিনেতা। তার মধ্যে আরটিভি স্টার অ্যাওয়ার্ড, সেরা চলচ্চিত্র অভিনেতা (দহন) হিসেবে বাচচাস পুরস্কার, শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে (পোড়ামন ২) মেরিল প্রথম আলো সমালোচক পুরস্কার, বাংলাদেশ-ভারত চলচ্চিত্র পুরস্কার (বিবিএফএ) উল্লেখযোগ্য।