স্যানিটাইজার-সাবানের ব্যবহারে রুক্ষ হাতের কোমল যত্ন

জীবনের প্রয়োজনে মানুষকে জীবীকার পেছনে ছুটতে হচ্ছে অতিমারির মধ্যেও। পালটে যাওয়া লাইফস্টাইলে সবকিছুই এখন নতুন। কিছু কিছু বিষয় জীবনের অংশ হয়ে গেছে। এই যেমন হ্যান্ড স্যানিটাইজার-সাবানের ব্যবহার। কোভিড সংক্রমণ থেকে রেহাই পেতে বাইরে গেলেই মুখে থাকছে মাস্ক আর ব্যাগে বা পকেটে হ্যান্ড স্যানিটাইজার। তার উপর ঘনঘন সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার পরামর্শও দিচ্ছেন চিকিৎসকেরা।

কিন্তু প্রতিদিন অসংখ্যবার স্যানিটাইজার ও সাবান ব্যবহারের ফলে হাত হয়ে যাচ্ছে রুক্ষ, শুষ্ক ও খসখসে। হারিয়ে যাচ্ছে সেই কোমলতা, প্রিয়জনকে চমকে দেওয়ার মসৃণতা। একদিকে করোনা থেকে রক্ষা পেতে সাবান-স্যানিটাইজার ব্যবহার করতেই হবে অন্যদিকে ত্বকের সমস্যা, এমন পরিস্থিতিতে কী করণীয়, চলুন জেনে নেওয়া যাক-

১.খুব প্রয়োজন না হলে মহামারির এই নাজুক পরিস্থিতিতে বাইরে বের না হওয়াই ভালো। কিন্তু জীবীকার প্রয়োজনে যাদের বের হতেই হচ্ছে তারা গ্লাভস ব্যবহার করতে পারেন। এতে স্যানিটাইজার বা সাবানের ব্যবহার তুলনামূলক কম করতে হবে।

২.সবসময় চেষ্টা করবেন লিক্যুইড সোপ বা ক্রিম বেসড সাবান দিয়ে হাত ধোওয়ার। এতে ক্ষতি কম হয় এবং হাতও মসৃণ থাকে।

৩.বাইরে গেলে হাতে সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে পারেন। দীর্ঘ সময়ের জন্য বাইরে থাকলে৪/৫ ঘণ্টা পর পর হাতে সানস্ক্রিন লাগালে ত্বকের ক্ষতি কম হবে।

৪.বাসায় নিজের কাছাকাছি কোনো ক্রিম রাখুন। যখনই হাত ধোওয়ার প্রয়োজন পড়বে বা স্যানিটাইজার ব্যবহার করবেন তখন তা লাগিয়ে নেবেন। এক্ষেত্রে প্রথমে হাত ভালো করে ধুয়ে নিয়ে পরিষ্কার তোয়ালে বা কাপড় দিয়ে মুছে নিয়ে তারপর ক্রিম লাগাবেন। তবে এই গরমকালে খুব বেশি ক্রিম লাগাবেন না। খুব অল্প ব্যবহার করাই ভালো হবে।

৫. যদি ক্রিম না থাকে তাহলে তেলও হাতে ব্যবহার করতে পারেন। তবে পরিমাণে খুব বেশি নয়। কারণ তাতে গন্ধ থাকে। আবার সুগন্ধী তেলও ব্যবহার করতে পারেন। তাতে সুগন্ধও ছড়াবে এবং আপনার হাতও ভালো থাকবে।

মনে রাখবেন, যেখানে প্রতি মুহূর্তে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ভয় তাড়া করে বেড়াচ্ছে সেখানে সুস্থ থাকাটাই এখন সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। নিজে সুস্থ থাকুন, কাছের প্রিয়জনদেরও নিরাপদে রাখুন।