সয়াবিনের মূল্য লিটারে ৮ টাকা বৃদ্ধি

ঢাকা: আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম বাড়ায় ফের দেশের বাজারে খোলা সয়াবিন তেলের দাম লিটারে ৭ টাকা এবং বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম লিটারে ৮ টাকা বাড়ছে। এছাড়া পাঁচ লিটারে ৩৫ টাকা এবং পাম তেলে ১৫ টাকা বাড়ছে।

আগামীকাল সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) থেকে এ দাম কার্যকর হবে।

আজ রোববার (৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে বৈঠক শেষে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ সংবাদ মাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

সর্বশেষ ২০২১ সালের ১৯ অক্টোবর সরকার নির্ধারিত মূল্য অনুযায়ী প্রতি লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল ১৬০ টাকা এবং খোলা সয়াবিন তেলের দাম ১৩৬ টাকা নির্ধারিত ছিল। বোতলজাত সয়াবিনের ৫ লিটারের দাম ৭৬০ ও পাম তেলের দাম ছিল প্রতি লিটার ১১৮ টাকা।

নতুন দাম অনুযায়ী, প্রতি লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল ৮ টাকা বেড়ে ১৬৮ টাকা এবং খোলা সয়াবিন তেলের দাম ৭ টাকা বেড়ে ১৪৩ টাকা, বোতলজাত সয়াবিনের ৫ লিটারের দাম ৩৫ টাকা বেড়ে ৭৯৫ ও পাম তেলের দাম ১৫ টাকা বেড়ে ১৩৩ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বাণিজ্য সচিব সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, গত ১৯ জানুয়ারি তেল ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বসেছিলাম। তখন দেখা গেলো আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ার ফলে এটা অ্যাডজাস্ট করা দরকার।

তাদেরও কথা ছিল যে এটা অ্যাডজাস্ট না করলে তারা এলসি খুলতে পারবে না, তাদের লস হচ্ছে। তাদের হিসাবে ১৯ তারিখই বলেছে ২০০ কোটি টাকা লস হয়েছে।

জানুয়ারি মাসের যে ফিগার সেটাসহ ক্যালকুলেট করে আমরা এই দাম ঠিক করলাম। কিছু অ্যাডজাস্ট করা হলো, যেটা ছিল সেটার সঙ্গে।

এ বিষয়ে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) এ এইচ এম সফিকুজ্জামান সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, নতুন যে দাম নির্ধারিত হয়েছে সেটি তারা তাদের প্যাডে ডিক্লেয়ার করছে, মাঝে যেটি করেছে সেটি ডিক্লেয়ারড ছিল না। তাদের প্যাডে তারা এবার ডিক্লেয়ার করবে। তাই এই দামটা আমরা রাখতে পারব। আমরা এটি মনিটরিং করব।

তেলের মূল্যবৃদ্ধির বিষয়টি নিশ্চিত করে টিকে গ্রুপের পরিচালক (অর্থ ও পরিচালন) মো. শফিউল আক্তার তসলিম সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, মন্ত্রীর সঙ্গে বসার পর আমরা কিন্তু ১৬৫ টাকায় বিক্রি করেছি এতদিন, সে হিসাবে দাম বেড়েছে নতুন করে তিন টাকা। সেটা ছিল আন-অফিসিয়াল।

তবে অফিসিয়ালি দাম বেড়েছে ৮ টাকা, পাঁচ লিটারে ৩৫ টাকা। আমরা আগামীকাল সকালে দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত আনুষ্ঠানিকভাবে জানাবো। কাল থেকেই এটি কার্যকর হবে। তবে বাজারে এর প্রভাব পড়বে দু-তিনদিন পর, শুক্র-শনিবারের আগে বাজারে প্রভাব পড়বে না।

তিনি বলেন, এখন আমরা যে প্রাইজ ঠিক করেছি, আজকের দিনে যে এলসি করছি এবং আজকের দিনে চিটাগাং পোর্টে যে পণ্য ঢুকছে তারচেয়ে এক থেকে দেড়শ ডলার কমে এই মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

সুতরাং ১০ থেকে ১৫ দিন পর আমাদের আবার বসতে হবে। আদারওয়াইজ ভেরি ডিফিকাল্ট।

এর আগে আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম বাড়ার কথা উল্লেখ নতুন দাম কার্যকরের দাবি জানিয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠায় বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন। পরে মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত দাম না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়।

প্র্রভাতনিউজ/এবিএস