হাইকোর্টের দেয়া আদেশটি দুর্নীতি দমনে সহায়ক হবে : তথ্যমন্ত্রী

অর্থপাচারকারীদের নাম-পরিচয়সহ বিভিন্ন তথ্য চেয়ে হাইকোর্টের দেয়া আদেশটি দুর্নীতি দমনে সহায়ক হবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

রোববার (২২ নভেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষ থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় গরু-বাছুর প্রদান উদ্বোধন শেষে সমসাময়িক বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা জানান। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের পক্ষ থেকে এসব গরু ও বাছুর প্রদান করা হয়।

আজ হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ (ভার্চুয়াল) অর্থপাচারকারীদের নাম-পরিচয়সহ বিভিন্ন তথ্য চেয়ে আদেশ দেন। আগামী ১৭ ডিসেম্বরের মধ্যে অর্থ সচিব, দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক), বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যানকে এসব তথ্য দাখিল করতে বলা হয়েছে।

একইসঙ্গে অর্থপাচারের ঘটনায় রুল জারি করেন আদালত। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে বিবাদীদের এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘প্রথমত হাইকোর্টের নির্দেশনাটি দুর্নীতি দমন, টাকা পাচারকারীদের দমনে সহায়ক হবে। এ রায়ের জন্য আমি হাইকোর্টকে ধন্যবাদ জানাই। এ রায়ের আগেই দুদক ও সরকারের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। হাইকোর্টের এ রায় এই কাজ করার ক্ষেত্রে সহায়ক হবে।’

জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা কোন পর্যায়ে- জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এ প্রশ্নটি আইন মন্ত্রণালয়কে করলে ভালো হতো। কারণ আমরা এক বছরের বেশি সময় ধরে আইন মন্ত্রণালয়ের দিকে তাকিয়ে আছি। আমি আশা করব, সহসা আইন মন্ত্রণালয় থেকে আমাদের কাছে আসবে।’