১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আফগানিস্তান ছাড়ছে মার্কিন সেনা

আফগানিস্তান

অবশেষে আগামী ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আফগানিস্তান ছাড়ছে মার্কিন সেনা। মঙ্গলবার এই বিষয়টি নিশ্চিত করে হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, বুধবার এ বিষয়ে চূড়ান্ত পরিকল্পনা ঘোষণা করবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন

গত বছর কাতারের রাজধানী দোহায় ঐতিহাসিক শান্তি চুক্তির পর আফগানিস্তান থেকে ২০২১ সালের মে মাসের মধ্যে সকল সেনা প্রত্যাহার করে নেয়ার ঘোষণা দেন তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে, চলতি বছরের জানুয়ারিতে দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই এই সময়ের মধ্যে সেনা সরানো অসম্ভব বলে জানান বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

বাইডেন প্রশাসনের এমন মন্তব্যের পর ফের তালেবানের সঙ্গে টানাপড়েন শুরু হয়। শান্তি আলোচনাও বাধাগ্রস্ত হয়। এমন অবস্থার মধ্যে অবশেষে নতুন তারিখ ঘোষণা করলো হোয়াইট হাউজ।

মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, আগামী ১১ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে সন্ত্রাসী হামলার ২০ বছর পূর্তির আগেই আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার করতে চান বাইডেন।

স্থানীয় সময় বুধবার এ নিয়ে চূড়ান্ত পরিকল্পনা তুলে ধরবেন তিনি। প্রেসিডেন্ট আফগানিস্তান ইস্যুতে তার পরিকল্পনা সবার সামনে উপস্থাপন করবেন।

আরও পড়ুন…আমি ভয়ে ঘরে ঢুকে যাওয়ার লোক নই : মমতা

মার্কিন প্রশাসনের উর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেছেন, সমস্যায় জর্জরিত আফগানিস্তানে সামরিক কোনো সমাধান নেই। আমরা চলমান শান্তি প্রক্রিয়াটিকে সমর্থনে মনোনিবেশ করবো।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে আল কায়েদার ভয়াবহ হামলার পর আফগানিস্তানে অভিযান শুরু করে মার্কিন বাহিনী। পাঠানো হয় হাজার হাজার সেনা। দীর্ঘ ১৯ বছর পর পরিস্থিতি অনেকটা পরিবর্তন হওয়ায় এইমধ্যে কয়েকধাপে দেশটি থেকে সেনা সরিয়ে নিয়েছে মার্কিন প্রশাসন। বর্তমানে আফগানিস্তানে প্রায় আড়াই হাজার মার্কিন সেনা রয়েছে।